চাকরিটা হবে কি হবে না,  এই চিন্তায় নাই বা গেলেন। আগে নিজেকে সেই চাকরির জন্য উপযুক্ত করে তোলা সবার প্রথমে জরুরি। কারও ডিগ্রি বেশি কারও কম,  কারও মার্কস কম কারও বা বেশি। কিন্তু ইন্টারভিউ টেবিলে যাঁরা আপনাকে যাচাই করার জন্য বসে থাকবেন,  তাঁদের কাছে নিজেকে তুলে ধরতে হবে একদম পারফেক্ট ভাবে।

মনে রাখবেন, ফার্স্ট ইমপ্রেশন ইজ দা লাস্ট ইমপ্রেশন। তাই ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার আগে পোশাকের দিকে বাড়তি নজর রাখতে হবে। কারণ আপনার সাফল্য অনেকটা পোশাকের উপরও নির্ভর করে।

পুরুষদের পোশাক :

১. ফুলহাতা শার্ট বেছে নিন। সাদা বা হালকা রঙের শার্ট ইন্টারভিউয়ে পরার জন্য একদম পারফেক্ট। তবে শার্ট বেছে নিন ট্রাউজ়ারের সঙ্গে ম্যাচ করে।

২. ইন্টারভিউ মানেই পুরুষদের থাকতে হবে একেবারে টিপটপ। ফর্মাল ট্রাউজারই বেস্ট। বেছে নিতে পারেন নেভি অথবা গাঢ় ধূসর রঙের ট্রাউজার।

৩. ইন্টারভিউয়ে শার্ট ইন করার পরাই ভালো। তাতে আপনার চেহারায় আসবে ফর্মাল লুকস। তা ইন্টারভিউ গ্রহণকারীদের কাছে বেশি গ্রহণযোগ্য। পোশাকের সঙ্গে মানানসই ও সঠিক রঙের বেল্ট বেছে নিন।

৪. নিজের লুকসে বিশেষ মাত্রা যোগ করতে শার্টের সঙ্গে মানানসই টাই বেছে নিতে পারেন।

৫. রংবেরঙের মোজা ইন্টারভিউয়ের জন্য একেবারেই চলে না। তাই বেছে নিতে পারেন ডার্ক কালারের মোজা। সেই সঙ্গে অবশ্যই চামড়ার জুতো পরবেন। কালো রঙের জুতোই বেস্ট।

৬. ইন্টারভিউ দিতে যাচ্ছেন। তাই যতটা সম্ভব অ্যাক্সেসারিজ এড়িয়ে চলুন। নয়তো আপনার ইমপ্রেশনটা খারাপই হবে। হাতে ঘড়ি ছাড়া অন্যান্য জিনিসপত্র কিছুক্ষণের জন্য না হয় খুলে রাখুন।

৭. নিট ও ক্লিন শেভ, হেয়ার স্টাইলটাও থাকুক সাদামাটা ও মার্জিত।

মহিলাদের জন্য :

১. মহিলারা চাইলে সুট বা শাড়ি পরতে পারেন। সুট পরলে বেছে নিন নেভি বা ধূসর রং। শাড়ির ক্ষেত্রেও সুতির হালকা রঙের শাড়ি পরুন।

২. স্কার্ট পরলে, স্কার্টের লেন্থের দিকে বিশেষ নজর রাখুন। যাতে লেন্থ অন্তত হাঁটু পর্যন্ত হয়।

৩. শাড়ির সঙ্গে ব্লাউজ়ের দিকে বাড়তি নজর দিতে হবে। বেশি ডিজাইনযুক্ত ব্লাউজ়ের বদলে এয়ার হোস্টেস গলার ও থ্রি কোয়াটার হাতাযুক্ত ব্লাউজ পরতে পারেন।

৪. পোশাকের রং যাতে একেবারেই ঝকমকে না হয়, সেদিকে নজর রাখা জরুরি।

৫. ইন্টারভিউয়ে যাওয়ার জন্য যতটা সম্ভব কম জুয়েলারি ও অ্যাক্সেসারিজ পরার চেষ্টা করুন। ছোটো কানের দুল, হাতে একটা ঘড়ি। ব্যাস, এর থেকে বেশি কিছু না পরাই ভালো।

৬. পোশাকের সঙ্গে মানানসই জুতো পরা জরুরি। সেইসঙ্গে বেশি হাইহিল এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।

৭. এলোমেলো অবস্থায় চুল খুলে ইন্টারভিউ না দিতে যাওয়াই ভালো। আবার চুলের অত্যাধিক স্টাইলও ইন্টারভিউয়ের সময় কাম্য নয়। পরিপাটি করে চুল বেঁধে নিন। চাইলে পনিটেল বাঁধতে পারেন।

৮. বেশি বড় নখ ও জমকালো রঙের নেলপলিশ এড়িয়ে চলুন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here