ইউরোপের মুসলমানদের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণ বাড়ছে এবং প্রতি পাঁচ জনের মধ্যে দুই জন অর্থাৎ ৪০ শতাংশ মুসলমান বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন। চাকরি, বাড়ি ভাড়া নেয়াসহ শিক্ষার মতো সরকারি সেবা নেয়ার ক্ষেত্রেও ইউরোপের মুসলমানরা বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন।

একটি মতামত জরিপে এ তথ্য উঠেছে এসেছে। জরিপে অংশগ্রহণকারী ৩০ শতাংশ জানিয়েছেন গত ১২ মাসে তারা অপমানসূচক আচরণ বা গালাগালির মুখে পড়েছে। আর ২ শতাংশ তাদের গায়ে হাত তোলা হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন।

ইউরোপীয় মৌলিক অধিকার সংস্থার পরিচালিত মতামত জরিপে ইউরোপের সমাজ ব্যবস্থার ইসলাম বিদ্বেষী প্রকট এ রূপটি উঠে এসেছে। ২০১৫ সালের শেষ থেকে ২০১৬ সালের গোড়ার দিক পর্যন্ত এটি চালানো হয়। ফ্রান্স, নেদারল্যান্ড, স্পেন, সুইডেন এবং ব্রিটেনসহ ১৫ ইউরোপীয় দেশের সাড়ে ১০ হাজার মুসলমানের ওপর এ জরিপ চালানো হয়।

২০০৮ সালে চালানো মতামত জরিপে ইউরোপীয় দেশগুলোতে মতামত জরিপের যে চিত্র পাওয়া গিয়েছিল এ জরিপে তার চেয়ে সাত শতাংশ বেড়েছে বলে ধরা পড়েছে।

হিজাব ইসলামী শালীন পোশাক পর মুসলমান নারীদের ৪০ শতাংশ বলেছেন, চাকরির আবেদন করার সময়ে তারা বৈষম্যের শিকার হয়েছে। আর ৩০ শতাংশ নারী বলেছেন, তারা অপদস্থ হয়েছে। কটু মন্তব্য বা বাজে ভঙ্গি করে তাদের অপদস্থ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here