টেনিসের সর্বকালের সেরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা৷ এসব কথাগুলোই খাটে রজার ফেডেরার-রাফায়েল নাদালের লড়াইয়ে৷ মুখোমুখি হলে বিনা লড়াইতে কেউ কাউকে একচুলও ছেড়ে দেননা৷ তাঁদের সেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা এবার বদলে গেল ‘জুটিতে’৷ হ্যাঁ, ফেডেরার এবং নাদাল জুটি৷ লেভার কাপে জুটি বেঁধে খেললেন ‘ফেদাল’৷ প্রতিপক্ষকে পরাজিত করলেন তাঁরা৷

গল্ফের রাইডার কাপের স্টাইলেই অনুষ্ঠিত হল টেনিসের এই টুর্নামেন্ট৷ ২২ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই টুর্নামেন্টে অবশিষ্ট বিশ্বের বিরুদ্ধে এগিয়ে ইউরোপও৷ তবে ম্যাচের ফলাফলের চেয়ে এই টুর্নামেন্টের প্রধান আকর্ষণ ছিল ফেডেরার-নাদাল ডাবলস ম্যাচ৷ কারণ মাঠের বাইরে দুজন বেশ ভাল বন্ধু, এটা তো কারও অজানা নয়৷ একজন ‘কিং অফ গ্রাস’ অন্যজন লাল-মাটির বাদশা৷ এর আগে একবার অদ্ভুত একটা ম্যাচ হয়েছিল রজার-রাফার মধ্যে৷ স্পেনের পাম এরিনায় একজন খেলেছিলেন ঘাসের কোর্টে, আরেকজন লাল মাটির কোর্টে, একই ম্যাচে৷ ‘ব্যাটল অব সারফেস’-এর পর কেটে গেছে প্রায় ১০ বছর৷ আর এবার খেললেন একই দলে, জুটি বেঁধে৷

নেহাতই প্রীতি টুর্নামেন্ট, জয়-পরাজয়ের কোনো প্রভাব পড়বে না এটিপি ব়্যাঙ্কিংয়ে৷ তবু দর্শকের কমতি ছিল না প্রাগে৷ প্রথম সেটে ৬-৪ ব্যবধানে জেতার সময় হাসিঠাট্টা করতে দেখা গেছে দুজনকে৷ কিন্তু পরের সেট জিতে যান কুয়েরি-সক জুটি৷ এই সেট কিছুটা হলেও টেনশন ধরা পড়ে তাদের চোখেমুখে৷ হাজার হোক বিশ্বসেরা খেলোয়াড় তো! হার-জিত একটা বড় ব্যাপার তাঁদের কাছে৷ তবে ‘ফেদাল’ জুটি ম্যাচে ফেরেন দারুণভাবেই৷ ১০ পয়েন্টের সুপার টাইব্রেকারে ১০-৫ ব্যবধানে শেষ পর্যন্ত জয় তুলে নেন ৩৫টি গ্র্যান্ডস্ল্যাম জেতা দুই তারকা৷

প্রতিযোগিতামূলক কোনো টুর্নামেন্টে জুটি বাধার পরিকল্পনা না থাকলেও প্রাগের স্মৃতিটা অসাধারণই নাদালের কাছে, ‘এটা আমাদের জন্য স্মরণীয় একটা মুহূর্ত। আমাদের কেরিয়ারের উত্থান-পতন ও প্রতিদ্বন্দ্বিতার এতগুলো বছর পর একসঙ্গে খেলতে পারাটা দারুণ ব্যাপার৷’ নাদালের সুরে সুর মিলিয়েছেন ফেডেরারও৷ তিনি বলেছেন,‘এই ম্যাচের স্মৃতি আমার সারাজীবন মনে থাকবে৷ কিন্তু এই টুর্নামেন্ট শেষে আমরা আবার প্রতিদ্বন্দ্বী৷’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here