রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শুরু হয়েছে। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী। বৈঠকে আরও উপস্থিত আছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, মুখ্য সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমসহ আরও অনেকে। আর মিয়ানমারের পক্ষে আছেন দেশটির স্টেট কাউন্সিলর দফতরের মন্ত্রী টিন্ট সোয়ে।

সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় বৈঠকটি শুরু হয়।

২৫ আগস্ট রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন শুরু হওয়ার পরে এই প্রথম দুই দেশ রোহিঙ্গাদের নিয়ে আলোচনায় বসলো। আলোচনায় বাংলাদেশের পক্ষে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ও কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের ওপর জোর দেওয়া হবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনে দেশটির রাখাইন রাজ্য থেকে পাঁচ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। এ নিয়ে সু চি’র ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়ার কারণে তিনি (সু চি) তার মন্ত্রী উ টিন্ট সোয়েকে বাংলাদেশে পাঠিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, টিন্ট সোয়ে মিয়ানমারের একজন প্রভাবশালী রাজনীতিক। তিনি রাখাইনদের বিষয়টি দেখভালের দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন। একজন পেশাদার কূটনীতিক হিসেবে তিনি দীর্ঘ ১০ বছর জাতিসংঘে মিয়ানমারের স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

 

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here