বোর্দোর বিপক্ষে গেল শনিবার ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে ৬-২ গোলের বড় জয় পায় প্যারিস সেন্ট জার্মেইন (পিএসজি)। কিন্তু ওই ম্যাচ শুরুর আগে ঘরের মাঠ পার্ক দেস প্রিন্সেসের কাছ থেকে নাকি চারটি বিস্ফোরক ডিভাইস উদ্ধার করেছিল পুলিশ।

এমনকি এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে পাঁচ জনকে আটকও করা হয়।

ফ্রান্সের পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে , একটি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে স্টেডিয়ামের কাছে চারটি বিস্ফোরক গ্যাস সিলিন্ডার নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছিল। তবে বিস্ফোরণ হবার আগেই চিহ্নিত করে তা নিষ্ক্রিয় করা সম্ভব হয়। বিস্ফোরণ হলে স্টেডিয়ামের আশেপাশে বড় ধরনের জান-মালের ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা ছিল।

ওই দিন পিএসজির স্টেডিয়ামে ৫০ হাজার দর্শক উপস্থিত ছিলেন। আর ম্যাচে বিশ্বের সবচেয়ে দামি দুই ফুটবলার ব্রাজিলের নেইমার ও ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপে দলটির হয়ে খেলছিলেন। উরুগুয়ের এডিনসন কাভানি ও আর্জেন্টাইন অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার মতো তারকারাও খেলছিলেন।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানায়, বিস্ফোরকগুলো স্টেডিয়ামের পাশে থাকা একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে পাওয়া যায়। স্থানীয়রা তা দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে সেগুলো উদ্ধার করে হয়।

এ ঘটনায় ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরাড কলোম্ব জানান, সন্দেহভাজন আটককৃতদের মধ্যে একজন আগে থেকেই পুলিশের নজরদারিতে ছিলেন। তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে এখনো তদন্ত চলছে। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এর আগে ২০১৫ সালের ১৩ নভেম্বর প্যারিসের তিনটি স্থানে আত্মঘাতি হামলায় ১৩০ জন নিহত হন। এর মধ্যে একটি হামলা ছিলো ফ্রান্স ও জার্মানির মধ্যে আন্তর্জাতিক প্রীতিম্যাচ চলাকালে স্টেডিয়ামের কাছেই।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here