টেস্ট ক্রিকেট দিয়ে ক্রিকেটের যাত্রা শুরু। ব্যাট-বলের এ লড়াই দিনকে দিন ছোট হয়ে আসছে। ‘টাইমলেস’ ক্রিকেটের পর এসেছে ছয় দিনের টেস্ট। এরপর টেস্ট ক্রিকেট হলো পাঁচ দিনের।

এরপর শুরু ৫০ ওভারের একদিনের ম্যাচ। ১৯৭১ সালের ৫ জানুয়ারি মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে প্রথম ওয়ানডে খেলেছিল অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড।

পরবর্তীতে এল টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। ২০০৫ সালে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড খেলল প্রথম টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। টেস্ট ক্রিকেটকে হুমকির মুখে ফেলেছে টি-টোয়েন্টি- এমন সমালোচনা হয় মাঝেমধ্যেই।

এবার টি-টোয়েন্টিকেই হুমকি দিতে আসছে ১০ ওভারের ক্রিকেট! সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হতে যাচ্ছে নতুন ক্রিকেট লিগ। দুই দলের ২০ ওভারের ম্যাচ শেষ হবে ৯০ মিনিটে। ২১ ডিসেম্বর টুর্নামেন্টের পর্দা উঠবে। চারদিনের টুর্নামেন্ট শেষ হবে ২৫ ডিসেম্বর।

১০ ওভারের টুর্নামেন্টে ক্রিস গেইল, বিরেন্দর শেবাগ, এউইন মরগান, কুমার সাঙ্গাকারা, শহীদ আফ্রিদির মতো তারকারা খেলবেন। খেলার কথা রয়েছে সাকিব আল হাসানের। ৭ দলের এ টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচ হবে শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

টি-টেন ক্রিকেটের আয়োজক সালমান ইকবাল জানান, প্রত্যেকেই রাস্তায় টি-টেন ক্রিকেট খেলেছে। এবার আমরা এটা মাঠে নিয়ে আসছি। আশা করছি প্রত্যেকেই টুর্নামেন্টটি উপভোগ করবে।’

এ আয়োজনকে স্বাগত জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি, `আমাকে যখন তাঁদের পরিকল্পনা শুনলাম তখন থেকেই আমি রোমাঞ্চিত। আমি তাদেরকে আমাকে দলভুক্ত করতে অনুরোধ করি।’

ইংল্যান্ডের সীমিত পরিসরের অধিনায়ক এউইন মরগান বলেছেন, ‘তাদের পুরো পরিকল্পনাটাই দারুণ। আমরা প্রত্যেকেই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলছি। আমরা প্রতেক্যেই অবগত টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট আমাদের অন্যান্য ফরম্যাটের খেলায় কতটুকু প্রভাব ফেলছে। আমি নিশ্চিত টি-টেন ক্রিকেটের পরিকল্পনা যদি ভালো রূপ পায় তাহলে এটা বড় আকার ধারণ করবে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here