মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন সৌদি আরবের কাছে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ‘থাড’ বিক্রির বিষয়টি অনুমোদন করেছে। এটির বিনিময়ে সৌদি আরবের তেল বিক্রিলব্ধ আয় থেকে ১,৫০০ কোটি ডলার ঘরে তুলে নেবে ওয়াশিংটন।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সৌদি আরবের আঞ্চলিক উদ্বেগ প্রশমনের লক্ষ্যে রিয়াদকে এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দেয়া হবে।  ওই মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আমেরিকার পররাষ্ট্রনীতি ও জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে এই ব্যবস্থা বিক্রি করা হচ্ছে। একইসঙ্গে এই ব্যবস্থা দীর্ঘমেয়াদে পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের বিভিন্ন হুমকি থেকে সৌদি আরবকে নিরাপত্তা দেবে বলেও বিবৃতিতে দাবি করা হয়।

মার্কিন প্রশাসনের অনুমোদনের পর এখন আগামী ৩০ দিনের মধ্যে দেশটির কংগ্রেসে এ সংক্রান্ত বিল পাস হতে হবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, তারা কংগ্রেসম্যানদের একথা বোঝানোর চেষ্টা করবেন যে, সৌদি আরবকে এই ব্যবস্থা দিলে তা আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা রক্ষায় সহায়ক হবে এবং মধ্যপ্রাচ্যে মোতায়েন মার্কিন সেনাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত মে মাসে রিয়াদ সফরে গিয়ে সৌদি আরবকে স্বল্প সময়ের মধ্যে ১১,০০০ কোটি ডলারের সমরাস্ত্র সরবরাহ করতে সম্মত হন। সেইসঙ্গে আগামী ১০ বছরে সৌদি আরবকে আরো ৩৫,০০০ কোটি ডলারের সমরাস্ত্র দিতেও রাজি হন তিনি।

আমেরিকা এরইমধ্যে সৌদি আরবের দুই প্রতিবেশী দেশ কাতার ও সংযুক্ত আরব আমিরাতকে থাড ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা সরবরাহ করেছে। এ ছাড়া, উত্তর কোরিয়ার সম্ভাব্য হুমকি মোকাবিলার লক্ষ্যে গত বছর দক্ষিণ কোরিয়ায় এই ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here