টি-টোয়েন্টির রমরমা যুগে সাদা পোশাকের ঐতিহ্যবাহী টেস্ট ক্রিকেট যেন হারিয়ে ফেলেছে তার নিজস্ব আবেদন। টেস্টের সেই পুরোনো জৌলুস ফিরিয়ে আনতেই বিগত কয়েকবছর ধরেই ভিন্ন কিছু একটা করার প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছিলো বিশ্ব ক্রিকেকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। এ সপ্তাহে নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য আইসিসির সভায় অনুমোদন পেতে যাচ্ছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ।

যেখানে র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষ ৯ টেস্ট দল নিয়ে দুই বছর ধরে চলবে চ্যাম্পিয়নশিপ আর শীর্ষ দুই দল খেলবে ফাইনাল। অষ্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যম সিডনি মর্নিং হেরাল্ডের তথ্যমতে, প্রাথমিকভাবে ২০১৯ থেকে দুবছর ধরে চলবে এই চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ গুলো।

সবার সঙ্গে সবার খেলা শেষে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুই দল প্লে অফ ম্যাচ খেলবে এবং সেখানে নির্ধারিত হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়ন। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুই দল ফাইনাল খেলবে টেস্টের রোমাঞ্চকর ভেন্যু লর্ডসে।

অন্যদিকে টেস্টের ন্যায় ওয়ানডেতেও হয়ত দেখা যাবে চ্যাম্পিয়শিপের লড়াই। যেখানে ১৩ টি দল অংশ নিবে এই আয়োজনে,  যেটা বিশ্বকাপ বাছাইয়ের বিকল্প হিসেবে থাকবে।

সেক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে দলগুলো বঞ্চিত হবে ওয়ানডে ম্যাচ বেশি আয়োজনে। চাইলেই ৫-৭ টি ওয়ানডে ম্যাচ আয়োজন এক সিরিজে সম্ভব নয়। প্রতি সিরিজে সর্বোচ্চ তিনটির বেশি রাখা যাবেনা পঞ্চাশ ওভারের ম্যাচ।

অনেক দিন ধরেই টেস্ট ওয়ানডে লিগ চালু করার কথা ভাবছে আইসিসি। সেই লক্ষ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজভিত্তিক ক্রিকেটের বদলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হবে লিগ ভিত্তিক।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here