মিসরের ঐতিহাসিক জয়ে জোড়া গোল করেন লিভারপুল স্ট্রাইকার সালাহ। কঙ্গোর হয়ে একমাত্র গোলটি করেন আর্নল্ড বোকা।

গত শনিবার উগান্ডা ও ঘানা ড্র করায় এই ম্যাচে জয় পেলেই নিশ্চিত হতো বিশ্বকাপে খেলা। ঘরের মাঠে শুরু থেকেই গোলের জন্য মরিয়া ছিল মিশর। ৬৬তম মিনিটে মিশরকে এগিয়ে নিয়ে যায় সালহ।

৮৮তম মিনিটে কঙ্গোর বদলি খেলোয়াড় আর্নল্ড এক গোল পরিশোধ করলে স্কোর লাইন ১-১ হয়ে যায়। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে উল্লাসে ভাসান সালাহ। গোলের পর ধরে রাখতে পারেননি আবেগ। এই লিভারপুল ফরোয়ার্ড লুটিয়ে পড়েন সেজদায়। নাইজেরিয়ার পর দ্বিতীয় আফ্রিকান দল হিসাবে বিশ্বকাপে উঠলো মিশর।

এদিকে বিশ্বকাপে চূড়ান্ত পর্যায়ে ওঠায় মিশরে চলছে ব্যাপক উৎসব। পোষ্টার, ব্যানার আর ফেস্টুনে চেয়ে গেছে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল। হৈ-হুল্লোড় করে এমন প্রাপ্তিকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন মিশরবাসী। এছাড়া খেলার মাঠেও বিপুল সংখ্যক সমর্থক জাগিয়ে রাখেন নিজ দেশের ফুটবলারদের।

মিশর সর্বশেষ ১৯৯০ সালে বিশ্বকাপ খেলেছিলো। তবে মাঝে আফ্রিকা ন্যাশন কাপে ১৯৯৮, ২০০৬, ২০০৮ ও ২০১০ সালে চ্যাম্পিয়ন হয় তারা। কিন্ত এতদিনেও বিশ্বকাপ মাঠে জায়গা করে নিতে পারেনি। অবশেষে যোগ্যতা অর্জন করলো। মিশর ও নাইজেরিয়া ছাড়া তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচ শেষে এখনও অন্য কোনো দল আফ্রিকা থেকে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করতে পারেনি। আফ্রিকা থেকে বিশ্বকাপে মোট পাঁচটি দল বিশ্বকাপ খেলবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here