নিজের দেশে নিরাপত্তা শঙ্কার জন্য খেলতে পারে না পাকিস্তান। কিন্তু এখন সংযুক্ত আরব আমিরাতকেই তারা নিজেদের ঘর বানিয়ে ফেলেছে। কঠিন হাতে প্রতিপক্ষকে জবাব দিতে তারা পটু হয়ে উঠেছে। বর্তমান প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কাকেও তারা কোনও ছাড় দিতে রাজি নয়। সেই হিসেবে পাকিস্তান কি জিনিস তা হারে হারে টের পাচ্ছে শ্রীলঙ্কা।

আবুধাবি টেস্টে পাকিস্তান শ্রীলঙ্কার কাছে হেরে গেলেও দুবাইয়ের এই টেস্টে ভালোই জবাব দিচ্ছে পাকরা। যেখানে শ্রীলঙ্কা জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছিল সেখান থেকেই উঠে এসেছে পাকিস্তান। জবাব দিচ্ছে শক্ত হাতে। এর ফলে লঙ্কানদের জয়ের আশা অনেকটাই ফিকে হয়ে যাচ্ছে। জয়ের আশায় বিভোর হয়ে থাকা স্বস্তির শ্রীলঙ্কায় এখন বইছে অস্বস্তির বাতাস।

৩১৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে মাত্র ৫২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলল পাকিস্তান। শ্রীলঙ্কার জয়ের ব্যবধান দু’শ নাকি দেড়শ হয়, সেটা দেখার অপেক্ষা চলছিল। কিন্তু সেই পরিসংখ্যান ভুলে পাকিস্তান উল্টো জবাব দিতে থাকে লঙ্কান বোলারদের। আর সেই সুবাদে দুর্দান্ত এক লড়াকু জুটিতে উল্টো জয়ের পথে ‘স্বাগতিক’ পাকিস্তান! চতুর্থ দিন শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে পাকদের সংগ্রহ ১৯৮ রান।

দিনের শুরুতে পিছিয়ে ছিল পাকিস্তানই। ৩৪ রানে ৫ উইকেট হারালেও শ্রীলঙ্কা যে প্রথম ইনিংসেই পেয়েছিল ২২০ রানের লিড। নিরোশান ডিকভেলা (২১)ও রঙ্গনা হেরাথের (১৭) দুটো ছোট কিন্তু কার্যকর ইনিংসে সে লিড ৩শ’ ছাড়ায়।

জবাবে পাকিস্তান খেলতে নেমে শুরু থেকেই উইকেট বিসর্জনের মিছিলে নামে। ৫ রানে প্রথম উইকেট হারানো দলটি দ্বিতীয় উইকেট হারিয়েছে ৩১ রানে। পরে ৩ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে পাকিস্তান। স্কোর লাইন দাঁড়ায় ৫২/৫। তখন লঙ্কানরা ভেবেছিল পাকিস্তানকে অল আউট করা এখন মাত্র সময়ের ব্যাপার।

কিন্তু আসাদ শফিক (৮৬*) ও অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ (৫৭*) ভাবলেন অন্য কিছু। শ্রীলঙ্কান বোলারদের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে দু’জনে কাটিয়ে দিলেন ৪০ ওভার। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, এ সময়ে ১৪৬ রান যোগ করেছেন দু’জন। এখন জয়ের জন্য মাত্র ১১৯ দূরে রয়েছে পাকিস্তান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here