যুক্তরাষ্ট্রের নেভাদা অঙ্গরাজ্যের লাস ভেগাসে হোটেল থেকে গুলি করে ৫৮ জনকে হত্যা ও শতাধিক লোককে আহত করার ছয় মিনিট আগে নিরাপত্তা প্রহরীকে গুলি করেছিলেন স্টিফেন প্যাডক (৬৪)।

স্থানীয় সময় সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে নেভাদার ক্লার্ক কাউন্টি শেরিফ জোসেফ লোমবার্ডো এ তথ্য জানিয়েছেন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রে আধুনিককালে সবচেয়ে ভয়াবহ এই গণহত্যার বিষয়ে জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে লোমবার্ডো জানান, লাস ভেগাসের মান্দালয় বে হোটেলের ৩২তলা থেকে জনবহুল কনসার্টে গুলি চালানোর আগে নিরাপত্তা প্রহরী জিসাস ক্যাম্পোসের পায়ে গুলি করেন স্টিফেন। সেখানকার সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে এটা দেখা গেছে।

শেরিফ জানান, লাস ভেগাসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানেই স্টিফেন প্যাডককে অংশ নিতে দেখা যায়। কিন্তু সে সময় তাঁর সঙ্গে কাউকে দেখা যায়নি। ১ অক্টোবর প্রকাশ্যে গুলি চালিয়ে নির্বিচারে হত্যার আগের রাতেও তিনি জুয়া খেলেছেন।

কাউন্টি শেরিফ আরো জানান, এ হামলার পর প্যাডক আত্মহত্যা করেন। তবে এটা অস্পষ্ট যে স্টিফেন কেন গুলি করা বন্ধ করল। হতে পারে, প্রাথমিক অবস্থায় তাঁর পালানোর পরিকল্পনা ছিল।

এ ঘটনার তদন্তের অগ্রগতিতে হত্যাশা ব্যক্ত করে লোমবার্ডো বলেন, ‘স্টিফেন এ ঘটনার পেছনের ব্যক্তিদের আড়ালের চেষ্টা করেছে, নাকি এর পেছনে আর কেউ ছিলই না—এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজে বের করা আমাদের জন্য দুরূহ হয়ে পড়েছে।’

হামলাকারী প্যাডকের পরিবার ও তাঁর বন্ধবীর সঙ্গে তদন্তকারী দল কথা বলেছে জানিয়ে কাউন্টি শেরিফ বলেন, ‘আমরা এফবি আইর (কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো) আচরণ বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করছি। এ ক্ষেত্রে আমরা বন্দুকধারীর মানসিক অবস্থা জানার চেষ্টা করেছি। আপাতত আমরা বিশ্বাস করছি না, এ হামলার সঙ্গে একজনই জড়িত। তবে এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় স্টিফেন (প্যাডক) ছাড়া আর কারো জড়িত থাকার কোনো ইঙ্গিত মেলেনি। এখন স্টিফেনের জীবনবৃত্তান্তই আমাদের কাছে প্রধান হাতিয়ার।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here