পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয়টিতে হারল শ্রীলঙ্কা। বুধবার আবুধাবিতে আগে ব্যাট করে পাক বোলারদের তোপে ২০৮ রানেই গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। জবাবে ইনজামামের ভাতিজা ইমাম-উল-হকের দারুণ শতকে ৪৫ বল এবং ৭ উইকেট হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে পাকিস্তান। এই জয়ে সিরিজ নিজেদের করে নিল আমিররা।

২১ বছর বয়সে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া ইমাম নিজের সামর্থ্যের জানান দিলেন অভিষেক ম্যাচেই। ঠাণ্ডা মাথার ব্যাটিংয়ে পেয়ে যায় ক্যারিয়ারের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরি। থিসারা পেরেরার বলে উইকেটরক্ষক নিরোশান ডিকবিলার গ্ল্যাভসে ধরা যখন পড়েন, ততক্ষণে সেঞ্চুরি পূরণ করে ফেলেছেন এই ওপেনার। ঠিক ১০০ রান করে আউট হয়েছেন তিনি। পাকিস্তানের জয়টাও প্রায় নিশ্চিত করে দিয়ে যান তিনি। যার আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেছেন মোহাম্মদ হাফিজ (৩৪*)। এছাড়া ফখর জামান করেছেন ২৯ রান, আর বাবর আজমের ব্যাট থেকে আসে ৩০ রান।

এর আগে হাসান আলীর বোলিং তাণ্ডবে শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানরা মোটেও সুবিধা করতে পারেননি। টস জিতে ব্যাটিংয়ের নেমে শুরুটা খুব একটা খারাপ না হলেও পাকিস্তানি বোলারদের সামনে দিতে হয়েছে কঠিন পরীক্ষা। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে লঙ্কানরা। নিরোশান ডিকবিলাকে (১৮) দিয়ে উইকেট উৎসব শুরু করা হাসানের শিকার সফরকারীদের পাঁচ ব্যাটসম্যান। একে একে এই পেসার ফিরিয়েছেন চামারা কাপুগেদরা (১৮), জেফরি ভ্যান্ডাসে (০), আকিলা ধনাঞ্জয়া (১) ও দুষ্মান্থ চামিরাকে (১০)।

শ্রীলঙ্কার হয়ে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলেছেন অধিনায়ক উপুল থারঙ্গা। এই ওপেনার শাদাব খানের শিকার হওয়ার আগে নামের পাশে যোগ করেন ৬১ রান। ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়া শ্রীলঙ্কার রান অতদূর যাওয়ার পেছনে অবদান রেখেছেন থিসারা পেরেরা (৩৮)।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here