বিভিন্ন উৎসব ও অনুষ্ঠানে বাঙালি বাড়িতে মিষ্টি দই এক অপরিহার্য অঙ্গ। ঘন দুধের সাথে চিনি গলিয়ে সেটাকে দই-র মত গেঁজিয়ে বা বসিয়ে তৈরি করা হয় মিষ্টি দই। এই মিষ্টি দেওয়া দইটি বানানো খুবই সহজ। সরযুক্ত ঘন দুধকে আরও ঘন করে প্রায় শুরু থেকে অর্ধেকে পরিণত করতে হবে। তারপর তাতে মেশাতে হবে গলানো চিনি। আমাদের এ আয়োজনে থাকবে কিভাবে আপনি মিষ্টি দই তৈরি করবেন।

উপাদানসমূহ :

দুধ – ৭৫০ মিলি

চিনি -১/২ টেবিল চামচ

জল – ১/৪ কাপ

টাটকা দই – ১/২ কাপ

বাদাম-পরিবেশনের সময় দিতে পারেন

কিভাবে তৈরি করবেন:

১.একটা গরম প্যানে দুধ ঢালুন।

২.এরপর এটা ফুটিয়ে অর্ধেক করে দিন।

৩.অন্যদিকে অন্য একটা প্যানে চিনিটা দিন।

৪.হালকা আঁচে নাড়তে থাকুন।

৫.এই নাড়াচাড়া করার মধ্যে মাঝে মাঝে গ্যাসটা বন্ধ করুন, আবার চালান। যাতে চিনিটা নিচে না ধরে যায়।

৬.বারবার এরকম করতে করতে এক সময় দেখবেন চিনিটা পুরো গলে গেছে এবং একটা হালকা বাদামি রঙ ধরবে।

৭.এবার গ্যাসটা পুরো বন্ধ করে জল দিন।

৮.ভাল করে মিশিয়ে একপাশে রেখে দিন।

৯.দুধটা অর্ধেক হয়ে গেলে,এবার এতে এই চিনির শিরাপটা ঢেলে দিন।

১০.ভাল করে মিশিয়ে গ্যাস থেকে নামিয়ে নিন।

১১.ঠাণ্ডা হতে দিন। মোটামুটি উষ্ণ গরম অবস্থায় এলে দেখুন।

১২.এবার টাটকা টক দইটা এর সাথে মেশান।

১৩.যে মাটির পাত্রে তা তৈরি করবেন তা সে পাত্রে এবার ঢেলে নিন।

১৪.এবার এই মাটির পাত্রটিকে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে মুড়িয়ে দিন।

১৫.১০-১২ ঘন্টার জন্য ফ্রিজে রাখুন।

১৬.পরিবেশনের আগে ফয়েল সরিয়ে ওপরে কুচনো বাদাম দিয়ে সাজিয়ে দিন।

দিকনির্দেশনা:

টাটকা দই ব্যবহার করবেন। পুরনো খুব বেশি টক দই নয়। দইটা খুব ভাল করে মেশাবেন। দেখবেন যেন ভেতরে দলা না পাকিয়ে যায়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here