রাশিয়ার নৌবাহিনীর পাঁচ যুদ্ধজাহাজের একটি বহর ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলায় ভিড়েছে। অনুদান হিসেবে দেশটির জন্য পাঠানো রুশ সামরিক সরঞ্জাম নিয়ে এ সব জাহাজ ভিড়েছে। ওয়াশিংটন-ম্যানিলা টানাপড়েন যখন তুঙ্গে তখন রুশ যুদ্ধজাহাজ ভিড়ল দেশটিতে।

রুশ কমান্ডার রিয়াল অ্যাডমিরাল ই. মিখাইলোভ শুক্রবার বলেন, ডুবোজাহাজ বিধ্বংসী তিন জাহাজ, অবতরণের কাজে ব্যবহৃত একটি এবং উদ্ধারকারী একটি জাহাজ এ বহরে রয়েছে। শনিবার সুবিক বে’র বন্দরে আরো দু’টি যুদ্ধজাহাজ ভিড়বে বলেও জানান তিনি। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ফিলিপাইনকে অনুদান হিসেবে দেয়া রাশিয়ার সামরিক সরঞ্জাম পৌঁছে দেয়ার জন্য ভিড়েছে এ সব জাহাজ।

অবশ্য সামরিক  সরঞ্জাম সম্পর্কে কোনো বিবরণ বিবৃতিতে দেয়া হয়নি। এর আগে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তে বলেছেন, রাশিয়া তার দেশকে পাঁচ হাজার কালাশনিকভ রাইফেল দিবে। জাহাজযোগে এসব রাইফেল শিগগিরই ফিলিপাইনে পৌঁছাবে বলেও ঘোষণা করেছিলেন তিনি।

এর আগে, ঐতিহ্যগতভাবে ফিলিপাইনের প্রধান অস্ত্র সরবরাহকারী ছিল আমেরিকা। মার্কিন মিত্র হিসেবে পরিচিত দেশটিতে এটাই রুশ অস্ত্রের প্রথম চালান বলে ধারণা করা হয়।

অবশ্য, গত জুনে আমেরিকা থেকে সেকেন্ড হ্যান্ড অস্ত্র কেনা ফিলিপাইন বন্ধ করে দেবে বলে ঘোষণা করেছিলেন দুতের্তে। মিন্দানাও দ্বীপের একটি সামরিক ঘাঁটিতে দেয়া ভাষণে তিনি বলেছিলেন, নতুন অস্ত্র কিনতে দ্বিগুণ অর্থ ব্যয়ে ফিলিপাইন রাজী। তিনি আরো বলেছিলেন, তার দেশ চীন কিংবা রাশিয়া থেকে নতুন বিমান, নৌযান, ড্রোন এবং রাইফেল কেনার চিন্তাভাবনা করছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here