আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) গাড়িকে উল্টোপথে চালিত করার নেগেটিভ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

আজ রোববার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ‘সাবধানে চালাবো গাড়ি, নিরাপদে ফিরবো বাড়ি’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান মশিউর রহমান। এতে স্বাগত বক্তব্য দেন ‘নিরাপদ সড়ক চাই’র সভাপতি চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছেলেমেয়েরা বিআরটিসির গাড়িকে উলটোপথে চালিত করে। কথা না মানলে ড্রাইভারকে গন্তব্যে নিয়ে আটকে রাখে। এ ধরনের শিক্ষার কোনো দরকার নেই। এরাই তো এক সময় দেশের দায়িত্ব গ্রহন করবে। এরা দায়িত্বে আসলে তখন দেশের কী অবস্থা হবে, সেটা ভাববার বিষয়।

মন্ত্রী এবং আমলাদের উদ্দেশে ওবায়দুল বলেন, ‘কত বলেছি, নিয়ম মেনে চলুন, শোনেননি। তবুও উল্টোপথে গাড়ি চালাচ্ছেন। এখন দুদক ধরছে, ধরবেই। আমরা রাস্তাকে নিরাপদ করব, হাল ছাড়ব না। প্রতিদিন কাজ করে যাব। আমি কারো কমিশন নিয়ে চলি না। শতভাগ সততা নিয়ে কাজ করি। তাই কাউকে ভয় পাই না।’

জনপ্রতিনিধিদের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিরা এলাকায় হেলমেট ছাড়া দিগি¦জয়ী আলেকজান্ডারের মতো গাড়ি চালাচ্ছেন। জনপ্রতিনিধিদের সংবর্ধনা দিতে শত শত মানুষ হেলমেট ছাড়া গাড়ির মহড়া করে। এতে করে যানজট হয়। সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে পড়ে। নিজেরা নিয়ম মেনে না চলায় দুর্ঘটনার সম্মুখীন হয়।’

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য মনিরুল ইসলাম, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সাবেক সচিব এম এন ছিদ্দিক, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here