টোকিওর একটি ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে বাক্সবন্দি ৯টি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় পুলিশ। এর মধ্যে ৮ জন মহিলা এবং ১ জন পুরুষের মৃতদেহ রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত তাকাহিরো শিরাইশি (২৭) নামের এক ব্যক্তিকে রোববার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

জাপানের টেলিভিশন এনএইচকে জানিয়েছে, শিরাইশি পুলিশের কাছে হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। সে বলেছে, আমি তাদের সবাইকে হত্যা করেছি। এরপর মৃতদেহ বাক্সে লুকিয়ে রাখার সুবিধার্র্থে কেটে টুকরো টুকরো করি।

এ কাজে আমি করাত ব্যাবহার করি। পুলিশ তার রুম থেকে সেই করাতটিও উদ্ধার করেছে। স্থানীয় সংবাদ সংস্থা জিজি প্রেস বলেছে, শিরাইশির এপার্টমেন্টের বাইরে প্রথমে পুলিশ একটি বাক্সের ভেতর মানুষের দুটি মাথা খুঁজে পায়। এরপর সন্দেহ হলে, তারা শিরাইশির ফ্ল্যাটে অভিযান চালায়। সেখানে আবিষ্কার করে এই লোমহর্ষক ঘটনা। তারা দেখতে পায়, বড় বড় বাক্সের ভেতর কেটে রাখা মৃতদেহ প্যাকেটজাত করে রাখা হয়েছে। ২৩ বছর বয়সী এক নারীর নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে এই নৃশংস হত্যাকান্ডের ঘটনা আবিষ্কার করে পুলিশ। ২১ সেপ্টেম্বর থেকে নিখোঁজ ছিলেন ওই নারী।

মৃত্যুর কিছুদিন আগে তিনি টুইট করেন যে, তিনি মৃত্যুর জন্যে একজন সঙ্গী খুঁজছেন। আত্মহত্যার তথ্যসংক্রান্ত একটি ওয়েবসাইটে শিরাইশির সঙ্গে পরিচয় হয় ওই নারীর। সিসিটিভির ফুটেজ অনুসন্ধান করতে গিয়ে শিরাইশির সঙ্গে হেঁটে যেতে দেখা যায় ওই নারীকে। এ নিয়ে পুলিশের তদন্তে এক পর্যায়ে বেরিয়ে আসে থলের বিড়াল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here