ঢাকা: নাঈম ও শবনম। হেসে-খেলে দারুণ সুখে তারা সংসারজীবন কাটিয়েছেন গেল একটা বছর। অতঃপর আসে তাদের প্রথম বিবাহবার্ষিকী। স্বাভাবিকভাবে দিনটিকে সেলিব্রেট করতে চায় দু’জনেই। কোনও সিদ্ধান্তে না পৌঁছেই দু’জনে বেরিয়ে পড়েন ঘুরতে। মুখোমুখি কিছুক্ষণ বসার জন্য বেছে নেন একটি নির্জন নিরিবিলি স্থান।

একান্তে কিছুটা সময় পার করার পর নাঈম দুষ্টুমির ছলেই স্ত্রী শবনমকে বিবাহবার্ষিকী সেলিব্রেট করার জন্য একটি অভিনব খেলার আমন্ত্রণ জানান। নাঈমের ভাষায়, যে খেলার মাধ্যমে একে অপরকে আরও বেশি করে জানার সুযোগ হবে। নিজেদের সম্পর্কটা আরও স্বচ্ছ ও দৃঢ় হবে। শবনম প্রথমে এমন অদ্ভুত খেলায় আগ্রহ না দেখালেও স্বামীর আগ্রহে সায় দেন। শুরু হয় দম্পতির প্রশ্ন-উত্তর খেলা।

এক পর্যায়ে নাঈম শবনমের পুরনো প্রেম নিয়ে প্রশ্ন করেন। সরল মনে উত্তর দেন শবনম। স্বামীকে বলেন, তার জীবনে এমন একজন মানুষ ছিল যাকে সে সত্যিকারের ভালোবাসতো এবং সেই প্রথম পুরুষ যে তাকে ছুঁয়েছিল!

মূলত এখান থেকেই ঘুরে যায় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘সহজ স্বীকারোক্তি’র গল্পের প্রথম বাঁক। এগুতে থাকে দুটি মানুষের সাজানো সংসারের নানা টানাপড়েন।

এতে প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন এফএস নাঈম ও শবনম ফারিয়া। আরও আছেন অন্তরা আজীম। জনপ্রিয় নির্মাতা মাবরুর রশীদ বান্নাহ-এর চিত্রনাট্যে স্বল্পদৈর্ঘ্যটি নির্মাণ করেছেন রিয়াদ তালুকদার।

গল্পটি প্রসঙ্গে শবনম ফারিয়া বলেন, ‘গল্পটি খুব চেনা। যা বেশিরভাগ মানুষের সঙ্গেই মিলে যাবে। যদিও এই চেনা গল্পগুলো নিয়ে আমাদের এখানে খুব বেশি কাজ করা হয় না। কারণ বিষয়টি বেশ সেনসেটিভ। এর চিত্রনাট্য, নির্মাণ এবং গল্প আমার বেশ লেগেছে।’

জানা গেছে এর আগে এফএস নাঈম ও শবনম ফারিয়া বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করলেও এটাই দু’জনার প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। যা শিগগিরই মুক্তি পাচ্ছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিএমভি-এর অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here