বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সবচেয়ে বর্ণাঢ্য ইতিহাসওয়ালা দলটি বোধহয় রাজধানী শহর ঢাকা দলটিই। মাঠে গড়ানো চার আসরের মধ্যে তিন আসরের শিরোপাই গিয়েছে তাদের ঘরে। শেষ চতুর্থ আসরের ট্রফিটাও তুলেছেন ঢাকা কাপ্তান সাকিব আল হাসান। ক্যাবিনেটে থাকা ট্রফিটা ক্যাবিনেটেই রেখে দিতে তাই ঢাকা ডায়নামাইটস নামবে এবারের বিপিএলে।

২০১২ এবং ২০১৩ সালে টানা দুই আসরে চ্যাম্পিয়ন তকমা নিজেদের গায়ে সাঁটিয়েছিল তখনকার ঢাকা দল। যদিও ফ্র্যাঞ্চাইজি ছিল আলাদা। আর নামটা ছিল ‘ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স’।

মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বে শিরোপা দুটি ঘরে তোলার পরেই অবশ্য ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে ঢাকার মালিকানা বদলে যায়। এক আসর বাদে বিপিএল ফিরেছিল নতুন করে, সাথে ঢাকাও ফিরেছিল নতুন মালিকানায়। যদিও ২০১৫ সালের সে আসরে ঢাকাকে বিদায় নিতে হয় প্লে-অফ থেকেই।

পরের বছরে ঢাকা দলে ভিড়ায় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। নেতৃত্বের ভারটাও চাপে সাকিবের কাঁধেই। হতাশ করেননি সাকিব। নিজের এবং নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে প্রথম শিরোপাটা চতুর্থ আসরেই উঁচিয়ে ধরেন সাকিব আল হাসান।

সেবার পাশে পেয়েছিলেন দেশী নাসির হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদী মারুফদের। মেহেদী মারুফ আর মোসাদ্দেক হোসেনকে রেখে দিলেও ঢাকা দল এবার ছেড়ে দিয়েছে নাসিরকে হোসেনকে।

দেশী আর বিদেশী মিলিয়ে ঢাকা দলকে এবারের বিপিএলের অন্যতম শক্তিশালী মানতেই হচ্ছে। অধিনায়ক আর আইকন ক্রিকেটার হিসেবে সাকিব তো থাকছেনই, কুমারা সাঙ্গাকারাও থাকছেন আগের দল থেকে।

এছাড়াও আছেন শহীদ আফ্রিদি, সুনীল নারিন আর গ্রায়েম ক্রেমারের মত টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মোর ঘুরিয়ে দেয়ায় সমর্থ ক্রিকেটাররা। যদিও শেষদিকে এসে শেন ওয়াটসনের ইনজুরিতে পড়াটা ঢাকা দলের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলে দিয়েছিল। তবে কিরন পোলার্ডের অন্তর্ভুক্তি সে আশঙ্কা আপাতত দূরে ঠেলে দিয়েছে।

ব্যাটিংয়ে দেশী মেহেদি মারুফের সঙ্গে উদ্বোধনী জুটিতে দেখা মিলতে পারে ক্যারিবীয় মারকুটে ওপেনার এভিন লুইসকে। শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডার আসেলা গুনারত্নে সাথে সাকিব আর সাঙ্গাকারা মিলে সামলাবেন মিডল অর্ডার। আফ্রিদি আর পোলার্ডের ব্যাটিং তান্ডব গুঁড়িয়ে দিতে পারে যেকোন শিবিরকে।

ঘুর্ণিবলে সাকিবের যোগ্য সঙ্গী হিসেবে নারিন কলকাতা নাইট রাইডার্সের মত এখানেও লড়বেন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে। ঘরোয়া ক্রিকেটের পরিচিত মুখ সাকলাইন সজীবও থাকছেন স্পিন সামলানোর দায়িত্বে।

 

মোহাম্মদ আমির সন্দেহাতীতভাবেই নেতৃত্ব দেবেন ঢাকার পেস আক্রমণে। আবু হায়দার রনি আর মোহাম্মদ শহীদের সাথে কেভন কুপারের মন্থর গতি ঢাকাকে এনে দিতে পারে দুর্দান্ত শুরু।

নিজেদের প্রথম লড়াইয়ে বিপিএলের পঞ্চম আসরের উদ্বোধনী দিনেই মাঠে নামনে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। শনিবার (৪ নভেম্বর) সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ঢাকাকে আতিথ্য দেবে স্বাগতিক দল সিলেট সিক্সার্স।

এক নজরে ঢাকা ডায়নামাইটস স্কোয়াডঃ

দেশীঃ সাকিব আল হাসান (আইকন), মোসাদ্দেক হোসেন, মেহেদি মারুফ, মোহাম্মদ শহীদ, আবু হায়দার রনি, নাদিফ চৌধুরী, সাকলাইন সজীব, জহুরুল ইসলাম অমি, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, সাদমান ইসলাম, নুর আলম সাদ্দাম।

বিদেশীঃ শহীদ আফ্রিদি, সুনীল নারিন, শেন ওয়াটসন, কিরন পোলার্ড, মোহাম্মদ আমির, শাহেন শাহ আফ্রিদি, এভিন লুইস, আসেলা গুনারত্নে, নিরোশান ডিকওয়ালা, গ্রায়েম ক্রেমার, রন্সফোর্ড বিটন, ক্যামেরন ডেলপোর্ত, কেভন কুপার, আকিল হোসেইন, জো ডেনলি, রভম্যান পাওয়েল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here