বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) প্রতিটি আসরেই পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের আধিক্য লক্ষ্য করা যায়। শনিবার (চার নভেম্বর) থেকে পর্দা উঠতে যাওয়া টুর্নামেন্টের পঞ্চম আসরেও তার ব্যতিক্রম হয়নি! তবে শুরু থেকে বিপিএলে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের খেলা নিয়ে শঙ্কা দেখা দেয়। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) শর্তের কারণে দেশটির ক্রিকেটারদের বিপিএলে অংশগ্রহণ অনিশ্চয়তার মুখে পড়ে।

এরপর অবশ্য শর্তসাপেক্ষে সরফরাজ আহমেদ, শাদাব খান, হাসান আলীদের খেলার অনুমতি দেয় দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। তবে শেষ মুহূর্তে আবারও বেঁকে বসেছে পিসিবি। বাবর আজম, ইমাদ ওয়াসিম, উসমান শেনওয়ারি এবং রুম্মান রইসকে সব ধরণের ক্রিকেট থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা পিসিবি।

বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নিষেধাজ্ঞা নয়, চোট সংক্রান্ত সমস্যা থাকার কারণে তাদেরকে ক্রিকেট থেকে দূরে থাকার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মেডিকেল ক্লিয়ারেন্স না পাওয়া পর্যন্ত এই চার ক্রিকেটার কোনও ধরণের ক্রিকেটে মাঠে নামতে পারবেন না। ফলে তাদের খেলা হচ্ছে না বিপিএল। এদের মধ্যে রুম্মন রইসকে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, উসমান শেনওয়ারি ও বাবার আজমকে সিলেট সিক্সার্স দলে ভিড়িয়েছিল।

বাবর আজম, ইমাদ ওয়াসিম, উসমান শেনওয়ারি এবং রুম্মান রইস এখন পর্যন্ত ইনজুরি থেকে সেরে উঠেননি। পুরোপুরি ফিট না হওয়া পর্যন্ত তাদের মাঠে নামতে নিষেধ করে দিয়েছে পিসিবি। কোনও ম্যাচে মাঠে নামতে হলে তাদেরকে আগে মেডিকেল ক্লিয়ারেন্স জমা দিতে বলা হয়েছে। পাকিস্তানি গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, এই চারজন ছাড়াও দেশটির আরও আট ক্রিকেটারকে মেডিকেল ক্লিয়ারেন্স না পাওয়া পর্যন্ত ক্রিকেট থেকে দূরে থাকতে বলা হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here