ইয়েমেনের রাজধানী সানা ও আশপাশের এলাকায় রোববার ভয়াবহ বিমান হামলা চালিয়েছে। আল-জাজিরা টেলিভিশন চ্যানেল বলেছে, ২০১৫ সালে ইয়েমেনে সৌদি আগ্রাসন শুরুর পর এটাই ছিল সবচেয়ে খারাপ দিন। গতকাল অন্তত ২৯ বার বিমান হামলা চালানো হয়েছে।

শনিবার রাতে ইয়েমেন থেকে সৌদি আরবের রিয়াদ কিং খালেদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর পর গতকাল এ ভয়াবহ আগ্রাসন চালায় সৌদি সরকার। ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্রটি রিয়াদ বিমানবন্দরের কাছে ভূপাতিত করার দাবি করে সৌদি আরব এবং এ ঘটনায় কোনো  হতাহতের ঘটনা ঘটে নি।

সানার বাসিন্দাদের বরাত দিয়ে আল-জাজিরা বলছে, আল-সাবিন চত্বর, প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের কাছাকাছি এলাকা, জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সদরদপ্তর ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওপর এসব বোমা হামলা চালায় সৌদি আরব। এরমধ্যে সাবিন চত্বরকে সামরিক কুচকাওয়াজের জন্য ব্যবহার করে হুথি যোদ্ধারা। গতকালের সৌদি বিমান হামলায় হতাহতের ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানা যায় নি।

সৌদি সামরিক কর্মকর্তা তুর্কি আল-মালিকি অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন যে, ইয়েমেনে এ ধরনের বিমান আগ্রাসন অব্যাহত থাকবে। অন্যদিকে, হুথি যোদ্ধারাও বলেছে, যেসব আরব দেশ ইয়েমেনের বিরুদ্ধে সামরিক আগ্রাসন চালাচ্ছে তাদের রাজধানীতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানা হবে। হুথি যোদ্ধাদেরকে সমর্থন করার জন্য সৌদি আরব ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানকে দায়ী করে আসছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here