ঘরের সব জিনিসিপুত্র ইঁদুর কেটেকুটে সাফ করে দিচ্ছে? কিন্তু কিছু করতে পারছেন না? তারউপর আরশোলা? বিষেও কাজ হচ্ছে না! কারণ, বিষ মাখানো খাবার খাচ্ছেই না ইঁদুর মশাই। কী করবেন এখন?

কারও ঘরে ইঁদুর-আরশোলা না-থাকলেও দিব্য আস্তানা গেড়ে বসেছে টিকটিকি-মাকড়সা। মাকড়সার ভয়ে বাথরুমে যেতেও ভয় লাগে? দেওয়াল বেয়ে টিকটিকির এমনই এদিক-ওদিক ছুটোছুটি ভয়ে শিউরে যাচ্ছেন? আপনার বাচ্চাও ভয়ে আঁতকে উঠছে?

জীববৈচিত্র্য, প্রকৃতির ভারসাম্য, ইকোসিস্টেম এসব বাদ দিন। ঘরে তো আর পোকামাকড়ের সঙ্গে থাকা যায় না। ইদানীং আবার মশার উৎ‌পাতও বেড়েছে?

এত খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে প্রশ্নের একটাই কারণ, সমাধান রয়েছে আপনার হাতের মুঠোতেই। পুদিনাগাছ চেনেন নিশ্চয়ই। এই পুদিনার গন্ধ আমাদের অস্বস্তির কারণ না-হলেও, ইঁদুর-মাকড়সাদের একদমই সহ্য হয় না। ঘরে পুদিনাপাতা থাকলে, এই কীটপতঙ্গ-পাল পালানোর পথ পাবে না।

এছাড়া পুদিনা পাতা কিনে এনে ভালো করে বেটে পুদিনা-চা বানিয়ে ফেলুন। ঘরের চার কোণে, বাথরুমে, যেখানে ইঁদুর-মাকড়সা-আরশোলার উৎ‌পাত বেশি, স্প্রে করুন। বিশেষত দরজা-জানলার চারপাশে। টবে বসানো পুদিনার গাছও ঘরে বসাতে পারেন। দেখুন কেমন ম্যাজিক কাজ করে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here