মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে পৌঁছেছেন। ব্যাপক শক্তি প্রদর্শনের অংশ হিসেবে যখন তিন মার্কিন বিমানবাহী রণতরি বিশাল সামরিক মহড়ার প্রস্তুতি তখন দক্ষিণ কোরিয়া সফর করছেন তিনি।

জাপান থেকে আজ ট্রাম্প সিউলে পৌঁছান। এ সফরকালে দক্ষিণ কোরিয়ার  প্রেসিডেন্ট মুন জাই-ইনের সঙ্গে দেশটির প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ ব্লু হাউজে সাক্ষাৎ করবেন তিনি। এ ছাড়া, মার্কিন এবং কোরিয় সেনাদলও পরিদর্শন করবেন। ১৯৫৩ সালে কোরিয় যুদ্ধবিরতি পর থেকেই দক্ষিণ কোরিয়ায় হাজার হাজার মার্কিন সেনা মোতায়েন রয়েছে।

এদিকে আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই মহড়া শুরু করবে মার্কিন তিন বিমানবাহী রণতরিসহ অন্যান্য যুদ্ধজাহাজ। মহড়ায় তিন মার্কিন বিমানবাহী রণতরি ছাড়াও একাধিক গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ডেস্ট্রয়ার এবং ডুবোজাহাজ অংশ নিবে। কোরিয় উপদ্বীপের পানিসীমায় কল্পিত যুদ্ধের মহড়া চালানো হবে। মহড়াকে সরাসরি উসকানি হিসেবে উত্তর কোরিয়া গ্রহণ করতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

এর আগে, এ এলাকায় দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া এবং আমেরিকার নৌবাহিনী যৌথ মহড়া চালিয়েছে। মহড়ায় উত্তর কোরিয়ার জন্য পরমাণু পণ্যবাহী জাহাজ আটকের কল্পিত ঘটনার অনুশীলন চালানো হয়েছে।

এদিকে, পিয়ংইয়ংয়ের কর্মকর্তারা মার্কিন নিউজ চ্যানেল সিএনএনকে গতকাল বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্রমবর্ধমান তৎপরতা যে কোনো সময়ে আরেকটি কোরিয় যুদ্ধ উসকে দিতে পারে।

কোরিয় উপদ্বীপে মার্কিন একাধিক রণতরির উপস্থিতির প্রতি ইংগিত করে তারা আরো বলেন, কেউই জানেন না কখন যুদ্ধবাজ ট্রাম্প লড়াইয়ের সলতেতে আগুন ধরিয়ে দেবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here