সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিমানবন্দর এবং সমুদ্রবন্দরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার হুমিক দিয়েছে ইয়েমেনের জনপ্রিয় হুথি আনসারুল্লাহ যোদ্ধারা। ২০১৫ সালের মার্চ মাস থেকে সৌদি নেতৃত্বাধীন কথিত আরব জোট ইয়েমেনের ওপর যে আগ্রাসন চালিয়ে আসছে তার জবাবে এ ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দিয়েছে।

মঙ্গলবার হুথি আন্দোলনের রাজনৈতিক শাখা থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সমস্ত বিমানবন্দর, সমুদ্রবন্দর, সীমান্ত ক্রসিং পয়েন্ট এবং এসব দেশের যেকোনো গুরুত্বপূর্ণ স্থান আমাদের ক্ষেপণাস্ত্রের সরাসরি লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হবে যা আমাদের বৈধ অধিকার।”

হুথি আনসারুল্লাহ আরো বলেছে, “আমরা নিরলস বসে থাকব না বরং ইয়েমেনের ওপর আরোপিত অবরোধ নস্যাৎ করা এবং দেশের জনগণকে দুর্ভিক্ষের মুখে ফেলা কিংবা অপমান প্রচেষ্টার বিষয়ে আমরা আরো নানা উপায়ে ব্যবস্থা নেব।”

সোমবার সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোট ঘোষণা করেছে, ইয়েমেনের সমস্ত বিমানবন্দর, সমুদ্রবন্দর ও স্থলবন্দর সামিয়কভাবে বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর একদিন পর হুথি আনসারুল্লাহ সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের বন্দরগুলোতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর ঘোষণা দিল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here