শীতকাল তো প্রায় চলেই এলো। এই সময়ে সর্দি কাশিসহ আরোও অনেক রোগের উপসর্গ দেখা দেয়। শীতের সময়ে বায়ু দূষণের কুয়াশাও শরীরের মারাত্মক ক্ষতি সাধন করে। বিশেষত এই সময়ে ফুসফুসের কর্মক্ষমতা কমে যায়। তাই বিশেষজ্ঞরা এই সময়ে শরীরের প্রতি যত্ন নেয়ার পরামর্শ দেন।

গবেষণায় দেখা গেছে, কুয়াশা ফুসফুসের পাশাপাশি হার্ট এবং মস্তিষ্কেরও মারাত্মক ক্ষতি করে।

এ সমস্যাগুলো দূর করতে কিছু খাবার আছে যা শরীরের জন্য খুবই উপকারী। আমাদের এ আয়োজনে এমন কিছু খাবার নিয়ে আলোচনা করব যা এই শীতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষামতা বাড়াতে সাহায্য করবে।

১) ব্রকলি

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমাতা বৃদ্ধি করতে ব্রকলি অনেক বেশি কার্যকর। এই শীতে বায়ু দূষণের কারণে শরীরের ভেতরে জমতে থাকা টক্সিক উপাদান বের করতে এ সবজিটি বিশেষ ভূমিকা পালন করে। কেউ যদি ব্রকলি খেতে না পারেন তাহলে ফুলকপি বা বাঁধাকপিও খেতে পারেন। কারণ, ব্রকলির মতো এই দুই সবজিও একই পরিবারের সদস্য।

২) টমাটো

এমন খাবার খাওয়া উচিত যা ফুসফুসকে বিষাক্ত ধোঁয়ার হাত থেকে বাঁচাবে। এ ক্ষেত্রে টমেটো বিশেষ ভূমিকা পালন করে। কারণ, টমেটোতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং লাইকোপেন নামক যে পদার্থ রয়েছে তা ফুসফুসের জন্য খুবই উপকারী। সেই সঙ্গে ফুসফুসের কর্মক্ষমতা বাড়াতেও কাজ করে। তাই তো যাদের শ্বাস কষ্ট বা অ্যাজমার মতো সমস্যা রয়েছে তারা নিয়মিত টমেটো খেতে পারেন, তাহলে দারুণ উপকার পাবেন।

৩) সাইট্রাস ফল

পাতি লেবু, কমলা লেবু, মৌসাম্বি লেবু এবং কিউই-এর মতো সাইট্রাস ফলে থাকা ভিটামিন সি শীতের মারাত্মক প্রভাব থেকে শরীরকে রক্ষা করে। তাই সারা শীতজুড়ে যদি ফিট এবং চাঙ্গা থাকতে চান, তাহলে রোজের ডায়াটে এই ফলগুলির রাখতে পারেন।

৪) অলিভ অয়েল

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, অলিভ অয়েলে থাকা অ্যালফা-টোকোফেরল নামক বিশেষ এক ধরনের ভিটামিন ই, ফুসফুসের ভেতরের প্রদাহ কমাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এছাড়াও হার্টকে সুস্থ রাখতেও অলিভ অয়েল বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৫) গ্রিন টি

শরীরকে রোগ থেকে মুক্ত রাখতে গ্রিন টি স্বাস্থের জন্য খুবই উপকারী। এছাড়াও বায়ু দূষণের হাত থেকে শরীরকে রক্ষা করতে গ্রিন টি নানাভাবে কাজ করে থাকে। আসলে গ্রিন টি’তে থাকা নানাবিধ কার্যকরি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ফুসফুস এবং শরীরের ভেতরে জমতে থাকা টক্সিক উপাদান বের করতে সাহায্য করে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here