চলতি মাসে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মিয়ানমার সফরের সময়ই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে দেয়ার চুক্তি হতে পারে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক। ১৯ থেকে ২৩ নভেম্বর হবে এ সফর। রাজধানীতে শনিবার সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ- সিপিডির এক সেমিনারে তিনি বলেন- মানবিক সাহায্য নয়, রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে রাজনৈতিক সমর্থন চায় বাংলাদেশ।

২৫ আগস্ট থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত আট লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে এসেছে।

সিপিডি বলছে, এসব রোহিঙ্গার পুনর্বাসনে ২০১৮ সালের জুন পর্যন্ত ৭ হাজার ১২৬ কোটি টাকা দরকার হবে, যা চলতি অর্থ বছরের বাজেটের ১ দশমিক ৮ শতাংশ। এ সংকটের কারণে বাংলাদেশ বহুমাত্রিক সমস্যায় পড়েছে । সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে অর্থনীতি, সমাজ ও পরিবেশের ওপর।

সেমিনারে নিরাপত্তা বিশ্লেষক, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, কূটনীতিক, দাতা সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেন। তুলে ধরেন সঙ্কট সমাধানের প্রস্তাব।

পররাষ্ট্র সচিব বলেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে দিতে এরইমধ্যে সবধরনের প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। ২৩ নভেম্বর মিয়ানমার গিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী দেশটির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

পররাষ্ট্র সচিব বলেন, প্রতিবেশি দেশ হিসেবে মিয়ানমারের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই, রোহিঙ্গা সংকট সমাধান করতে চায় বাংলাদেশ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here