দেশের দক্ষিণাঞ্চলে নতুন একটি সেনানিবাসসহ মোট ১০ প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে একনেক। যার নামকরণ হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে। পায়রা নদী-সংলগ্ন এলাকা লেবুখালিতে এই সেনানিবাস স্থাপন করা হবে।

মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে শেরেবাংলা নগরস্থ এনইসি সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় বরিশালে শেখ হাসিনা সেনানিবাস স্থাপনের অনুমোদন দেওয়া হয়।

সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের জানান, অনুমোদিত ১০ প্রকল্পে ব্যয় হবে ৩ হাজার ৩৩৩ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। যার মধ্যে সরকারি ৩ হাজার ৩১৮ কোটি ৩৯ লাখ টাকা।

তিনি জানান, ১ হাজার ৬৯৯ কোটি টাকা ব্যয় হবে সেনানিবাসটি স্থাপনে। আগামী ২০২১ সালের জুনে শেষ হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২০১৪ সালের ২৫ জুন এটি স্থাপনে অনুমোদন দেন। এখন ৯৬৫ একর জমি অধিগ্রহণ করতে হবে। তবে এখানে চর বলে তেমন কোনো জনবসতি নেই। তাই কোনো ক্ষতিপূরণের প্রয়োজন হবে না। বর্তমানে দেশে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৯টি ডিভিশনে ৩০টি সেনানিবাস রয়েছে।

জানা গেছে, মোংলা বন্দরের আউট বারে সাড়ে ৮ মিটারের বেশি জাহাজ প্রবেশ করতে পারছে না। তাই বঙ্গোপসাগর থেকে মোংলা বন্দরের প্রবেশ মুখের গভীরতা বাড়াতে ড্রেজিং করা হবে। এতে ব্যয় হবে ৭১২ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

এদিকে ভারতের বহরমপুর থেকে আরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত আমদানির জন্য দ্বিতীয় ৪০০ কেভি ডাবল সার্কিট সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হবে। যাতে ব্যয় হবে ১৮৯ কোটি ৩১ লাখ টাকা। সরকারের নিজস্ব টাকায় এটি করা হবে। প্রথমটিতে এডিবি ঋণ দিয়েছিল। কিন্তু এবার বিদেশি সহাযতা পাওয়া যায়নি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here