লা লিগা মৌসুমের প্রথম মাদ্রিদ ডার্বিতে জয়ের মুখ দেখলো না কেউ। অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের মাঠে গোলশূন্য ড্র করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। শনিবারের খেলা শেষে সবচেয়ে বড় অর্জন তাই বার্সেলোনার। মাদ্রিদ প্রতিদ্বন্দ্বীদের সঙ্গে তারা ১০ পয়েন্টে ব্যবধান বাড়িয়ে নিয়েছে।

১২ ম্যাচে ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বার্সেলোনা। আর ২৪ পয়েন্ট নিয়ে তিন ও চারে রিয়াল ও অ্যাতলেতিকো। এক ম্যাচ কম খেলে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে ভ্যালেন্সিয়া।

শনিবার রাতে ডার্বিতে গোলের সবচেয়ে বড় সুযোগটা এসেছিল ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই, সুযোগ পেয়েছিল স্বাগতিক অ্যাটলেটিকো। রিয়াল ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানের ভুল ব্যাকপাসে বল পেয়েছিলেন অ্যাঙ্গেল কোরেয়া। রিয়াল গোলরক্ষককে একা পেয়েও লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

রিয়াল প্রথম সুযোগ পেয়েছিল ম্যাচের ৩২ মিনিটে। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করে অ্যাটলেটিকোর ডি বক্সে ঢুকে পড়েন টনি ক্রুস। জার্মান মিডফিল্ডারের শট অল্পের জন্য পোস্টের বাইরে দিয়ে চলে যায়। একটু পর রোনালদোর ফ্রি-কিক ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকিয়ে দেন অ্যাটলেটিকোর গোলরক্ষক ইয়ান ওবলাক।

বিরতির কয়েক মিনিট আগে হেড করতে গিয়ে অ্যাটলেটিকোর ডিফেন্ডার লুকাস হার্নান্দেজের বুট লেগে নাক ভেঙে ফেলেন রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোস। প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে প্রথমার্ধের বাকি সময়ে খেললেও দ্বিতীয়ার্ধে তাকে আর মাঠে নামাননি রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদান।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৭৯ মিনিটে প্রায় গোল পেয়েই যাচ্ছিল অ্যাটলেটিকো। দুই বদলি খেলোয়াড় ফার্নান্দো তোরেসের পাস থেকে বল পেয়ে যান কেভিন গামেইরো। তার চিপ শটে বল রিয়ালের গোলরক্ষক কাসিয়ার মাথার ওপর দিয়ে ভেতরে ঢুকতে যাচ্ছিল। শেষ মুহূর্তে বল লাইন থেকে হেড করে ফিরিয়ে দেন ভারানে।

রিয়ালের পাশাপাশি রাতটা হতাশার ছিল রোনালদোর জন্যও। চলতি লা লিগায় এখনো পর্তুগিজ তারকার নামের পাশে গোল মাত্র একটি। অ্যাটলেটিকোর আঁতোয়ান গ্রিজমানও আছেন নিজের ছায়া হয়ে। ফরাসি ফরোয়ার্ড লিগে আট ম্যাচে গোল করতে ব্যর্থ হয়েছেন।

২০০৫ সালে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর পর প্রথমবারের মতো লা লিগায় মাদ্রিদ ডার্বি গোলশূন্য ড্র হলো। আর অ্যাটলেটিকোর ঘরের মাঠে ১৯৯৩ সালের পর প্রথম। জিদানের অধীনে লিগে এই প্রথম কোনো ‘অ্যাওয়ে’ ম্যাচে গোল করতে ব্যর্থ হলো রিয়াল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here