৮০ দিন পর ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজাবাসীর জন্য শনিবার রাফাহ সীমান্ত খুলে দিয়েছে মিশর। এ দফায় তিনদিন খোলা থাকবে রাফাহ। ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস ও প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের নেতৃত্বাধীন ফাতাহ আন্দোলনের মধ্যে গত ১২ অক্টোবর জাতীয় সংহতি প্রতিষ্ঠার বিষয়ে নতুন চুক্তি হওয়ার পর এ সীমান্ত খুলে দেয়া হলো।

গাজার মানবিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে তিনদিনের জন্য রাফাহ সীমান্ত খোলা হয়েছে। এর ফলে গাজা ও মিশর সীমান্তে আটকে পড়া মানুষের সংখ্যা কিছুটা কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। গাজা থেকে যেসব মানুষ চিকিৎসাসহ জরুরি প্রয়োজন মেটাতে বাইরে যেতে চান দীর্ঘদিন ধরে রাফাহ সীমান্ত বন্ধ থাকায় তাদের পক্ষে তা সম্ভব হচ্ছিল না। আবার বাইরে থেকে যেসব নাগরিক গাজায় ফিরতে চান তারাও যেতে পারছিলেন না।

২০০৭ সালে গাজার ওপর সর্বাত্মক অবরোধ চাপিয়ে দেয় ইহুদিবাদী ইসরাইল। সেই থেকে গাজার অধিবাসীরা বাইরের জগতের সঙ্গে বলা চলে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। গাজাকে এখন বিশ্বের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত করাগার বলা হয়। অবরুদ্ধ থাকার কারণে সেখানকার মানুষের জীবনমানের মারাত্মক অবনতি হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here