বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃতি দেয়ার আজ শনিবার সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে আনন্দ শোভাযাত্রায় সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারিদের অংশগ্রহণের নির্দেশনাকে অন্যায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ শনিবার সকালে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ক্যাবিনেট সেক্রেটারি লিখিত অর্ডার দিয়েছেন সকল সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদেরকে আজকে সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে উপস্থিত হতে হবে। প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য রাখবেন-এটা কোনো দেশে আছি? একটি রাজনৈতিক বিষয়ে সমাবেশ বলি, সংবর্ধনা বলি এখানে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের আপনি চিঠি দিয়ে, ধমক দিয়ে তাদেরকে সেখানে পাঠাচ্ছেন, এটা অন্যায়। এটা কিসের দেশ? এটা গণতান্ত্রিক দেশ নয়, এটা একদলীয় দুঃশাসনের দেশ। আাবার বাকশাল নতুন চমক নিয়ে, নতুন জামা পড়ে, নতুন পোষাক পড়ে শেখ হাসিনার অধীনে নব জন্ম হলো বাকশাল এবং সরকারি অফিসারদের পলিটিক্যাল সভায় উপস্থিত হতেই হবে।

রাজধানীতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ঢাকাস্থ পিরোজপুর জাতীয়তাবাদী ফোরামের উদ্যোগে জেলা সভাপতি গাজী নুরুজ্জামান বাবুলের মুক্তির দাবিতে এই মানববন্ধন হয়।

সংগঠনের সভাপতি হিরু রহমান হিরন মোল্লার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, কেন্দ্রীয় মীর সরফত আলী সপু, শাহজাহান মিলন, রফিকুল ইসলাম মাহতাব, পিরোজপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ক্যাবিনেট সেক্রেটারির গতকালকের নির্দেশ এটা সন্ত্রাসী নির্দেশ। এটা কোনো আইনি নির্দেশ নয়। আইনি নির্দেশ নয় বলে জোর করে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের আজকের জনসভায় যোগ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

কোনো গণতান্ত্রিক দেশের সরকারি কর্মকর্তাদের এভাবে কোনো রাজনৈতিক সভায় যোগদান করতে হয় না। এখানে এমন একটি অবস্থা যে এখানে কোর্ট আমার, প্রশাসন আমার, পুলিশ আমার। আওয়ামী লীগের বাইরে কোনো কথা নেই, কোনো রঙ নেই। নিয়ম বলে কিছু নেই। আইন একটা শেখ হাসিনার আইন, এখানে অন্যকোনো আইন চলবে না।

১৯৭৫ সালের জানুয়ারিতে একদলীয় শাসনব্যবস্থা বাকশাল প্রতিষ্ঠার প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে রিজভী বলেন, আপনার বাবা বাকশাল করেছিলো। তখন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারি, সেনাবাহিনী, বিডিআর, পুলিশের কর্মকর্তাদের যোগদান করতে হতো।

তার কন্যা শেখ হাসিনার আমলে আবার আজকে নতুন বাকশাল দেখছি, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের পলিটিক্যাল মিটিংয়ে যেতে হচ্ছে। না হয় তাদের চাকুরি থাকবে না, তাদের বেতন কেটে নেয়া হবে। জোর করে, জুলুম করে মানুষের হৃদয় জয় করতে পারবেন না প্রধানমন্ত্রী। আপনি এটা জুলুম করছেন। একাত্তরের ৭ মার্চ যে ভাষণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালির স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন, সেই ভাষণ বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে ইউনেস্কোর মেমোরি অফ দা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টারে যুক্ত হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here