পেনাল্টি নিয়ে যত নাটক! একবার নেইমার নেন তো পরেরবার এডিনসন কাভানি। বুধবার রাতে ট্রয়েসের বিপক্ষে পালাক্রমে পেনাল্টি পাওনা ছিল উরুগুয়ে ফরোয়ার্ডের। তিনি শট নিয়েই আটকে গেছেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের দেয়ালে। পরে পিএসজিকে টেনে তুলে আসল ত্রাতা নেইমারই। নিজে গোল করেছেন, সঙ্গে পেনাল্টি মিসের খলনায়ক কাভানিকে দিয়ে গোল করিয়ে বানিয়েছেন নায়কও। তাতে পিএসজি জিতেছে ২-০ গোলে।

প্যারিসে বুধবার রাতে দ্বিতীয়ার্ধে দলকে এগিয়ে দেওয়ার পর এদিনসন কাভানিকে দিয়ে একটি গোল করান নেইমার। ২-০ গোলের এই জয়ে লীগ ওয়ানে নিকটতম প্রতিদ্বন্ধীদের চেয়ে প্যারিসের ক্লাবটি এখন ১০ পয়েন্ট এগিয়ে।

প্রথমার্ধে বলের নিয়ন্ত্রণে অনেক এগিয়ে থাকলেও আক্রমণে উঠে সুবিধা করতে পারছিল না স্বাগতিকরা। আনহেল দি মারিয়া দুইবার গোলের সুযোগ তৈরি করেছিলেন। তবে আর্জেন্টিনার এই ফরোয়ার্ডের একটি শট পোস্টের সামান্য বাইরে দিয়ে যায়। আরেকটি ঠেকান গোলরক্ষক মামাদু সামাসা।

৬৮তম মিনিটে নেইমারের ফ্রি-কিক ফিরিয়ে আবারও তোয়ার ত্রাতা সামাসা।

তবে ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডকে রোখা যায়নি। ৭৩তম মিনিটে বল নিয়ে খানিকটা এগিয়ে ডিফেন্ডারদের এড়িয়ে ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে কোনাকুনি শটে পিএসজিকে এগিয়ে নেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই ফুটবলার। এবারের লীগে নেইমারের গোল হলো নয়টি। ৯০তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া নেইমারের নিচু ক্রসে জোরালো শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন কাভানি। এ মৌসুমে লীগে ১৭ নম্বর গোলটি করলেন সর্বোচ্চ গোলদাতা। ১৫ ম্যাচে ত্রয়োদশ জয়ে পিএসজির পয়েন্ট ৪১। ১০ পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে অলিম্পিক মার্সেই। অলিম্পিক লিও ও বতর্মান চ্যাম্পিয়ন মোনাকোর পয়েন্ট ২৯।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here