গ্রুপ ‘ডি’ এর শীর্ষে থেকে চ্যাম্পিয়নস লিগে নকআউটপর্ব নিশ্চিত হয়েছে আগেই। তাই গ্রুপের শেষ ম্যাচে স্পোর্টিংয়ের বিপক্ষে ম্যাচটি ছিল বার্সেলোনার জন্য এক প্রকার আনুষ্ঠানিকতা।

তবে ন্যু ক্যাম্পে ওই ম্যাচে গতকাল প্রতিপক্ষের আত্মঘাতী গোলসহ স্পোর্টিংয়ের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে কাতালান ক্লাবটি।

মঙ্গলবার রাতে ন্যু ক্যাম্পে লিওনেল মেসিকে বেঞ্চে রেখে শুরুর একাদশ সাজান ভালভার্দে। আক্রমণভাগের দুর্বলতা তাতে ভাল করেই চোখে পড়েছে। প্রথমার্ধ থাকে গোলশূন্য।

মধ্যবিরতির পরও প্রতিপক্ষের জাল খুঁজে পাচ্ছিল না বার্সা। ম্যাচের ৫৯ মিনিটে গোলখরার অবসান ঘটান পাকো আলকাসের। ডেনিশ সুয়ারেজের কর্নারে মাথা ছুঁয়ে বল জালে জড়ান তিনি।

ম্যাচের ৬২ মিনিটে ভিদালকে উঠিয়ে মেসিকে পাঠান ভালভার্দে। খেলার ধারও বাড়ে। ৭৪ মিনিটে মেসির শট অল্পের জন্য জালমুখ খুঁজে পায়নি। ৭৭ মিনিটে লুকাস দিনিয়েও গোলবঞ্চিত হন। ৭৯ মিনিটে মেসির আরেকটি আক্রমণ ব্যর্থ হয়। ৮২ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে মেসির জোরাল শট ঠেকিয়ে দেন অতিথি গোলরক্ষক প্যাট্রিসিও।

যোগ করা সময়ে বার্সা দ্বিতীয় গোলটি পায় অতিথিদের কল্যাণেই। সুয়ারেজের ক্রস ঠেকাতে গিয়ে নিজেদের জালেই জড়িয়ে দেন সাবেক বার্সেলোনা ডিফেন্ডার জেরেমি ম্যাথিউ।

গ্রুপপর্বে অপরাজিত থেকে ৬ ম্যাচে ৪ জয় ও ২ ড্রয়ে ১৪ পয়েন্টে নকআউটে পা রাখল বার্সেলোনা। গ্রুপ রানার্সআপ জুভেন্টাসের পয়েন্ট ১১। আর ৭ পয়েন্ট অর্জন করা স্পোর্টিং সুযোগ পাবে ইউরোপা লিগে খেলার।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here