নিয়মরক্ষার ম্যাচের আড়ালে একটা করে সুযোগ দুদলেরই ছিল। ঢাকার জন্য সেটি সেরা দুইয়ে থেকে কোয়ালিফায়ারের টিকিট কাটার। আর রংপুরের জন্য ঢাকাকে হারিয়ে এলিমিনেটরের সম্ভাব্য প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ড্রেস রিহার্সেল সেরে রাখার। মাঠের লড়াইয়ে জিতে সুযোগটা কাজে লাগিয়েছে সাকিবের ঢাকা, মাশরাফীবিহীন রাইডার্সকে ৪৩ রানে হারিয়ে প্রথম কোয়ালিফায়ারে কুমিল্লার প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

কোয়ালিফায়ারের চার দল আগেই নিশ্চিত হয়েছে। এক ম্যাচ হাতে রেখে ১৬ পয়েন্টে শীর্ষে থাকা নিশ্চিত করেছে কুমিল্লা। ১২ ম্যাচে ১৫ পয়েন্টে দুইয়ে ছিল খুলনা। বুধবার রংপুরকে হারিয়ে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে রানরেটে দুইয়ে উঠে গেল ঢাকা। ৮ তারিখ প্রথম কোয়ালিফায়ারে খেলে সরাসরি ফাইনালের টিকিট কাটার সুযোগ পাবে ঢাকা বা কুমিল্লা।

সেখানে দ্বিতীয় সুযোগ থাকবে হারা দলটির জন্যও। শুক্রবারের প্রথম ম্যাচে এলিমিনেটরে মুখোমুখি হবে খুলনা ও রংপুর। যাতে জয়ী দলের বিপক্ষে প্রথম কোয়ালিফায়ারে হারা দল খেলবে অঘোষিত সেমিফাইনাল ১০ তারিখের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে। রংপুর ১২ পয়েন্ট নিয়ে সেরা চারের চতুর্থ দল।

এদিন মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢাকা ডায়নামাইটসের দেয়া ১৩৮ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ৯৪ রান সংগ্রহ করে রংপুর রাইডার্স।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৮ রান করেন রবি বোপারা। ঢাকা ডায়নামাইটসের পক্ষে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ১টি, সাকিব আল হাসান ২টি, সুনিল নারিন ১টি, আবু হায়দার রনি ২টি ও মোহাম্মদ আমির ১টি করে উইকেট নেন।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রান সংগ্রহ করে ঢাকা ডায়নামাইটস। দলের পক্ষে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ৩৩ বল খেলে ৪৭ রান করে অপরাজিত থাকেন। রংপুর রাইডার্সের পক্ষে স্যামুয়েল বাদরি ১টি, রুবেল হোসেন ২টি, নাহিদুল ইসলাম ১টি, ইবাদত হোসেন ২টি ও আব্দুর রাজ্জাক ১টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ৪৩ রানে জয়ী ঢাকা ডায়নামাইটস।

ঢাকা ডায়নামাইটস ইনিংস: ১৩৭/৭ (২০ ওভার)

(সুনিল নারিন ৪, এভিন লুইস ১৪, জো ডেনলি ৯, জহুরুল ইসলাম ৫, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ১০, মেহেদী মারুফ ৩৩, সাকিব আল হাসান ৪৭*, কাইরন পোলার্ড ৬, মোহাম্মদ আমির ৩*; স্যামুয়েল বাদরি ১/১৮, রুবেল হোসেন ২/৩২, নাহিদুল ইসলাম ১/১২, ইবাদত হোসেন ২/৩৭, আব্দুর রাজ্জাক ১/২৩, রবি বোপারা ০/১২)।

র্ংপুর রাইডার্স ইনিংস: ৯৪/৭ (২০ ওভার)

(জনসন চার্লস ২৬, অ্যাডাম লিথ ৩, ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ১, শাহরিয়ার নাফিস ৭, মোহাম্মদ মিথুন ২, রবি বোপারা ২৮*, নাহিদুল ইসলাম ১৩, আব্দুর রাজ্জাক ৫, স্যামুয়েল বাদরি ০*; মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ১/১৩, সাকিব আল হাসান ২/১৩, সুনিল নারিন ১/১৮, আবু হায়দার রনি ২/২৩, মোহাম্মদ আমির ১/১৫, সাদ্দাম হোসেন ০/৬)।

প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: সাকিব আল হাসান (ঢাকা ডায়নামাইটস)।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here