অন্যের মুখাপেক্ষী হয়ে নয়— নিজের যোগ্যতায় প্রতিষ্ঠিত হতে নারীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার রাজধানী ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে এবগম রোকেয়া পদক-২০১৭ প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আত্মবিশ্বাস ও আত্মমর্যাদা নিয়ে কাজ করে নারীকে তার আপন ভাগ্য জয় করতে হবে। বেগম রোকেয়া নারী জাগরণের যে পথ তৈরি করে গেছেন— সে পথ ধরেই নারীরা শুধু বাংলাদেশেই নয় বরং আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারছে।

বেগম রোকেয়া যে পথ নারীদের জন্য তৈরি করে গেছেন— তা আরো প্রশস্ত করতে কারো দয়া বা সহযোগিতায় নয় বরং নিজের পায়ে দাঁড়াতে আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। এ সময় বাংলাদেশে নারী উন্নয়নে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের নানা উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন তিনি।

এর আগে প্রতিবছরের মতো এবারও দেশের বরেণ্য পাঁচ নারীকে রোকেয়া পদকে ভূষিত করা হয়।

তাদের মধ্যে নারী উন্নয়নে অবদান রাখার জন্য মরনোত্তর পদক পেয়েছেন লেখক-সাংবাদিক এ এন মাহফুজা খাতুন-বেবী মওদুদ, চিত্রশিল্পী সুরাইয়া রহমান, লেখক শোভারানী ত্রিপুরা, সংগঠক মাজেদা শওকত আলী, সমাজকর্মী মাসুদা ফারুক রত্না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, নিজ নিজ কর্মে প্রতিষ্ঠিত এ বরেণ্য ৫ নারী ও তাদের প্রতিনিধিদের হাতে তুলে দেন রোকেয়া পদক।

নারী কল্যাণ সংস্থা ১৯৯১ সাল থেকে এই নামের একটি পদক প্রদান করা শুরু করে। সরকারীভাবে ১৯৯৬ সাল থেকে এই পদক প্রদান করা হয়। সর্বশেষ ২০১৬ সালে সর্বশেষ রোকেয়া পদক পেয়েছিলেন আরমা দত্ত ও অধ্যাপক নাসিমা বানু (মরণোত্তর)।

শেষে এই বাংলায় জন্ম নেয়া বেগম রোকেয়া, প্রীতিলতা, কবি সুফিয়া কামালসহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পর্যন্ত নারী উন্নয়নে অবদান রাখা ব্যক্তিত্বদের নিয়ে গীতিনাট্য পরিবেশন করা হয়।

 

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here