ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করতেই সরকার গুম-খুনের পথ বেছে নিয়েছে-এমন অভিযোগ এনে মানবন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের মাধ্যমে আর্ন্তজাতিক মানবাধিকার দিবস পালন করেছে বিএনপি। রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে দলটির নেতারা আরো অভিযোগ করেন, সরকার রাষ্ট্রযন্ত্রের সহায়তায় ক্ষমতাকে ধরে রাখার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

গণতন্ত্র ও মানবাধিকার পুনরুদ্ধারে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই বলেও মন্তব্য করেন বিএনপি নেতারা।

আজ ১০ ডিসেম্বর আর্ন্তজাতিক মানবাধিকার দিবস। এ দিনটি উপলক্ষে দেশে গুম-খুন, ধর্ষণ-নির্যাতন ও হামলা-মামলা বন্ধের প্রতিবাদে রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনের আয়োজন করে বিএনপি।

এত অংশ নেন গুম হওয়া বিএনপির নেতা-কর্মীদের স্বজনসহ দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দ এবং বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

ক্ষমতাকে চিরস্থায়ী করতেই সরকার দেশে গুম-খুন চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের বরাত দিয়ে গুম-খুনের একটি হিসাব তুলে ধরে গুম হওয়া সকলকে ফিরিয়ে দেয়ার আহ্বানও জানান তিনি।

সরকার মানবাধিকার গুম করে পুরো দেশটাকে কারাগার করে ফেলেছে বলেও এসময় সমালোচনা করেন বিএনপির নীতি-নির্ধারণী পর্ষদের নেতারা।

গুম হওয়া নেতা-কর্মীদের স্বজনরাও এ প্রতিবাদে একাত্বতা প্রকাশ করে তাদেরকে ফেরত দেয়ার দাবি জানান।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খানও। তিনি বলেন, ‘বর্তমান প্রেক্ষাপটে বর্তমান সরকার বাংলাদেশ থেকে মানবাধিকার বিষয়টিই গুম করে ফেলেছে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং সরকারি দলের নেতাদের বক্তব্যের সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘তারা কথায় কথায় বলে থাকেন বাংলাদেশ নাকি এখন বিশ্বের কাছে রোল মডেল। এটাই কী তাহলে বাংলাদেশের রোল মডেলের চিত্র যেখানে ভিন্নমত প্রকাশ করলে একমাত্র অপরাধ হচ্ছে গুম হয়ে যাওয়া?’।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার জনবিচ্ছিন্ন হয়ে জনপ্রিয়তা হারিয়ে এখন মিথ্যার ফ্যাক্টরি তৈরি করেছে। মিথ্যাচার করতে করতে তারা এখন মানবাধিকার নিয়েও মিথ্যাচার করেছে।’

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল প্রমুখ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here