পানিফল একটি বর্ষজীবী জলজ উদ্ভিদ। রাস্তা-ঘাটে, বাজারে সব জায়গায় শীতের মৌসুম আসলেই এই ফল পাওয়া যায়। পানিফল কাঁচা এবং সেদ্ধ দুইভাবেই খাওয়া যায়। পানিফলের রয়েছে প্রচুর স্বাস্থ্য উপকারিতা।

চলুন দেখে নেয়া যাক পানিফলের গুণাগুণ-

১০০ গ্রাম পানিফলের আছে খাদ্যশক্তি- ৬৫ কিলোক্যালরি, জলীয় অংশ- ৮৪.৯ গ্রাম, খনিজ পদার্থ- ০.৯ গ্রাম, খাদ্যশস্য- ১.৬ গ্রাম, আমিষ- ২.৫ গ্রাম, চর্বি- ০.৯ গ্রাম, শর্করা- ১১.৭ গ্রাম, ক্যালসিয়াম- ১০ মিলিগ্রাম, আয়রন- ০.৮ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি১- ০.১৮ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি২- ০.০৫ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি- ১৫ মিলিগ্রাম। এছাড়াও এতে রয়েছে জিঙ্ক, আয়রন, সোডিয়াম, পটাশিয়াম।

পানিফলের ৩টি ঔষধি গুণ!

১। পানিফলের শাঁস শুকিয়ে রুটি বানিয়ে খেলে অ্যালার্জি ও হাত-পা ফোলা রোগ কমে যায়।

২। উদরাময় ও তলপেটের ব্যথায় পানিফল খুবই উপকারী।

৩। বিছা বা পোকা কামড় দিলে আহত স্থানে পানিফল পিষে লাগালে ব্যথা দ্রুত সেরে যায়।

অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি ভাইরাল গুণ রয়েছে এই ফলের। এমনকি অ্যান্টিক্যান্সার হিসেবেও কাজ করে পানিফল। বমিভাব, হজমের সমস্যা দূর করতে পানিফলের জুড়ি নেই। অনিদ্রা, দুর্বলতা দূর করতে কাজে দেয় এই ফল। পানিফল ঠাণ্ডা, সর্দিতেও স্বস্তিদায়ক হিসেবে কাজ করে। ব্রঙ্কাইটিস, অ্যানিমিয়া কমাতে পারে এই ফল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here