বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি আজ রবিবার উপকূলের কাছাকাছি অবস্থান করছে। এর ফলে সারা দেশেই সকাল থেকে বৃষ্টি ঝরছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আজ রবিবার সারা দিনই বৃষ্টি ঝরবে।

সকালে ঢাকা আবহাওয়া কার্যালয়ের আবহাওয়াবিদ বজলুর রহমান বলেন, দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল, দক্ষিণাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা বেশি। সারা দিন মূলত গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিই হবে। তবে কোথাও কোথাও মাঝারি আকারে বৃষ্টিও হতে পারে।

রবিবার বিকেল থেকে পরিস্থিতি বদলাতে শুরু করতে পারে। সে হিসেবে হয়তো কাল থেকে আকাশ পরিষ্কার হয়ে সূর্যের দেখা মিলবে।

এই অবস্থায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী সময়ে নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় বৃষ্টিপাত হয়েছে ১৫ মিলিমিটার। দেশে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে চাঁদপুরে। সেখানে ২৪ ঘণ্টায় ৬২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

সাধারণত এ সময়ে শীত শুরু হয়ে যায়। হিমালয় থেকে আসা হিমেল বাতাস উত্তরাঞ্চলে জেঁকে বসে। কিন্তু এবার সেটা হচ্ছে না। কারণ, সেই বাতাস আটকে দিচ্ছে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপ।

তবে মধ্য ডিসেম্বরের পর থেকে রাতের তাপমাত্রা কমে গিয়ে শীত বাড়তে থাকবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদ বজলুর রহমান।

সোমবার থেকে পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে:

এদিকে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে সোমবার থেকে পর্যায়ক্রমে আবহাওয়া পরিস্থিতি উন্নতি হতে থাকবে, তবে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের কারণে আজ রবিবার পর্যন্ত সারাদেশে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকতে পারে।

আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান রবিবার দুপুরে জানান, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের কারণে আগামীকাল পর্যন্ত বৃষ্টিপাত থাকবে এবং সোমবার থেকে অবস্থার উন্নতি হবে।

সাগর উত্তাল থাকায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও এর আশপাশের এলাকায় সৃষ্ট নিম্নচাপটি উত্তর অথবা উত্তরপূর্ব দিকে সরে আসতে পারে।

নিম্নচাপটি এখন সামান্য উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে সরে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আজ দুপুর ১২ টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম বন্দরের ৬৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে, কক্সবাজার বন্দর থেকে ৬৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে, মংলা বন্দর থেকে ৪৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে এবং পায়রা বন্দর থেকে ৫০৫ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ-পূর্ব দিকে অবস্থান করছিল বলে আবহাওয়া দপ্তর জানায়।

এসময় পরবর্তি নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে নিরাপদ অবস্থানে থাকতে বলা হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here