ঘন কুয়াশার কারণে দেশের ৪টি নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। নৌরুটগুলি হলো মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি, শিমুলিয়া এবং রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া।

আমাদের মাদারীপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঘন কুয়াশার কারণে মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে বন্ধ রয়েছে ফেরি চলাচল রয়েছে। এ সময় বেশ কয়েকটি যানবাহন ও কয়েক’শ যাত্রী নিয়ে মাঝ নদীতে আটকা পড়ে ঘাট থেকে ছেড়ে আসা ৫টি ফেরি। রাত ৩টার দিকে দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখে ঘাট কর্তৃপক্ষ।

এতে ঘাটের উভয় পাড়ে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে ৪ শতাধিক যানবাহন। মাদারীপুরের কাঁঠালাবাড়ি ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাম হোসেন জানান, রাতে কুয়াশার মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় নদীর চার পাশ ঘোলা দেখাচ্ছিল। যা ফেরি চালকদের সংকেত বুঝতে ও দেখতে সমস্যা হয়। পরে দুর্ঘটনায় এড়াতে এই নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়।

একই সময় উভয়ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া ৫টি ফেরি কুয়াশার কারণে মাঝ নদীতে যাত্রী ও যানবহন নিয়ে আটক পড়ে। এছাড়া বাকি ১২টি ফেরি যানবাহন লোড করে ঘাট এলাকায় নোঙর করে রাখা হয়েছে। কুয়াশা কেটে গেলে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে আমাদের গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি জানিয়েছেন, রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে ঘন কুয়াশার কারণে মঙ্গলবার সকালে প্রায় দুই ঘণ্টা সকল প্রকার নৌযান চলাচল বন্ধ ছিল।

এসময় মাঝ নদীতে আটকা পড়ে যানবাহন বোঝাই আটটি ফেরি। উভয় ঘাটে আটকা পড়েন কয়েক হাজার যাত্রী ও গাড়ি চালক।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় জানায়, সোমাবর দিবাগত রাত থেকে নদীতে ঘন কুয়াশা পড়তে থাকে। রাত বাড়ার সাথে কুয়াশার ঘনত্বও বাড়তে থাকে। এক পর্যায়ে সামান্য দূরত্বেও কিছুই দেখতে না পারায় মঙ্গলবার সকাল পৌনে সাতটা থেকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে ফেরিসহ সকল প্রকার নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

তার আগেই দৌলতদিয়া এবং পাটুরিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া আটটি ফেরি মাঝ নদীতে আটকা পড়ে। এছাড়া উভয় ঘাটে যানবাহন বোঝাই করে ঘাটেই নোঙ্গর করে ছিল ছোট-বড় আরো সাতটি ফেরি। দুই ঘণ্টার বেশি সময় শীত ও কুয়াশায় আটকে থাকায় যাত্রী ও গাড়ি চালকরা দুর্ভোগে পড়েন। পৌনে নয়টার পর থেকে কুয়াশা কাটতে শুরু করলে ফেরি ছাড়তে শুরু করে। একইভাবে ঘাটে নোঙ্গর করে থাকা যাত্রীবাহী লঞ্চ ছাড়তে শুরু করে।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলাম জানান, কুয়াশার কারণে প্রায় দুই ঘণ্টার মতো ফেরি চলাচল বন্ধ এবং দুটি বড় ফেরি কয়েকদিন ধরে বিকল থাকায় যানবাহন পারাপার ব্যাহত হয়।

 

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here