হুট করেই সোমবার গণমাধ্যমে খবর এলো রাজধানীর উত্তরায় ১৩ নম্বর সেক্টরে অভিনেত্রী অপর্ণা ঘোষের চলমান বাইককে পেছন থেকে পরিকল্পিতভাবে একটি ট্রাক ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই অভিনেত্রী নিহত হন। এমন খবরে তাৎক্ষণিক হুলস্থুল পড়ে যায় মিডিয়া অঙ্গনে। তবে পরক্ষণেই জানা যায়, খবরটি ভুয়া।

আর গণমাধ্যমে এমন দায়িত্বহীন খবর প্রকাশে একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালের উপর ভীষণ চটেছেন এ সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপর্ণা ঘোষ।

ওই অনলাইন নিউজপোর্টালে সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়; যার শিরোনাম ‘জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপর্ণা ঘোষ নিহত!!’

বানোয়াট ও মনগড়া এই খবর প্রকাশে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী অপর্ণা ঘোষ। তথাকথিত সাংবাদিকদের যোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

অনলাইন নিউজপোর্টালটির দায়িত্ব-জ্ঞান হীন কর্মকাণ্ডে চরম ক্ষুব্ধ হয়ে সোমবার অর্পণা ঘোষ ফেসবুকে সেই নিউজের লিঙ্ক শেয়ার করে জবাব দিয়েছেন। বলেছেন, তিনি বর্তমানে শুটিংয়ে মালয়েশিয়াতে আছেন।

ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, ‘জনৈক সাংবাদিক, সম্পাদক ! আপনাদের কাছ থেকে একটি সংবাদ আশা করছি … শিরোনাম: কি কি অযোগ্যতা থাকলে হাতুড়ে সাংবাদিক হওয়া যায় ?’

তিনি আরও লেখেন, ‘আমি শুটিংয়ে মালেয়শিয়াতে আছি, আর আপনাদের এই অযোগ্য সাংবাদিকতার কারণে আমার পরিবার থেকে পরিচিতজনসহ সবাই যে কি পরিমাণ দুশ্চিন্তার মধ্য দিয়ে গেছে তা নিশ্চয়ই আপনাদের ১৪০০ গ্রামের মস্তিষ্ক দিয়ে বিবেচনা করা সম্ভব হবে না। পুনশ্চ: সাংবাদিকতা আর মলম বিক্রি একসাথে গুলিয়ে ফেলবেন না।’

অপর্ণা ঘোষ ২০০৯ সালে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‘থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে পরিচিতি লাভ করেন। বেশকিছু টেলিভিশন ধারাবাহিক এবং খণ্ড নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করছেন তিনি। তার অভিনীত ছবিগুলো হল- মৃত্তিকা মায়া (২০১৩), মেঘমল্লার (২০১৪), সুতপার ঠিকানা (২০১৫), দর্পণ বিসর্জন (২০১৬) ও ভুবন মাঝি (২০১৭)।

২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় সেরা পাঁচের একজন নির্বাচিত হন অপর্ণা। মৃত্তিকা মায়া চলচ্চিত্রের জন্য ২০১৩ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেত্রীর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান এই ক্লাসিক অভিনেত্রী।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here