টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর বড় দলগুলোর সঙ্গে খেলার সুযোগ হচ্ছে আয়ারল্যান্ডের। ২০১৯-২০২৩ সালের ফিউচার টু্যর প্রোগ্রামে ১৬টি টেস্ট রয়েছে আইরিশদের। এর মধ্যে বাংলাদেশের বিপক্ষে ২টিসহ অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকার মত দলের বিপক্ষেও খেলবে তারা।

আয়ারল্যান্ড তাদের এফটিপিতে অর্ধেকের মতো টেস্ট পাচ্ছে সেরা নয় দলের বিপক্ষে। ২০১৯ সালে তাদের খেলার কথা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে, ২০২০ সালে শ্রীলঙ্কা, ২০২১ সালে ইংল্যান্ড এবং ২০২২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে একটি করে টেস্ট খেলবে আইরিশরা। এছাড়া আফগানিস্তানের বিপক্ষে সবচেয়ে বেশি ৫টি এবং জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেও ৪টি টেস্ট খেলবে তারা।

আফগানিস্তান অবশ্য এই জায়গায় কিছুটা পিছিয়ে। ২০১৯-২০২৩ এফটিপিতে ১৩টি টেস্ট রয়েছে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির। আগামী বছরের জুনে আইসিসির বার্ষিক সভায় এই এফটিপি পাশ হওয়ার কথা।

তার আগে ২০১৮ সালের মে মাসে পাকিস্তানের বিপক্ষে ঘরের মাঠে একটি টেস্ট খেলবে আয়ারল্যান্ড। আর আগামী বছর ভারতের মাঠে একটি টেস্ট খেলা প্রায় চূড়ান্ত আফগানিস্তানের।

আয়ারল্যান্ডের তুলনায় কম হলেও হোম এন্ড অ্যাওয়ে মিলিয়ে জিম্বাবুয়ের প্রায় সমান সংখ্যক ম্যাচ খেলবে আফগানিস্তান। সাতটি ঘরের মাঠে এবং ছয়টি টেস্ট দেশের বাইরে খেলবে তারা। আয়ারল্যান্ড সাতটি খেলবে হোমে এবং নয়টি খেলবে বাইরে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here