ভয়ই পাইয়ে দিয়েছিল আল জাজিরা। আবুধাবির ক্লাবটিই যে শুরুতে এগিয়ে গিয়েছিল ক্লাব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে। তবে দ্বিতীয়ার্ধে ঠিকই ঘুরে দাঁড়ায় রিয়াল মাদ্রিদ। পঞ্চম ব্যালন ডি’অর জিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ক্লাব শ্রেষ্ঠত্বের বিশ্ব আসরে গিয়ে পর্তুগিজ তারকা মাদ্রিদের দলটিকে ফেরালেন সমতায়। আর চোট কাটিয়ে ফেরা গ্যারেথ বেলের লক্ষ্যভেদে ২-১ গোলের জয়ে ফাইনালে পৌঁছে যায় ইউরোপ চ্যাম্পিয়নরা।

বুধবার রাতে আবুধাবির জায়েদ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ শানিয়েছে জিনেদিন জিদানের দল। প্রথমার্ধে প্রতিপক্ষের জালমুখে ১৮টি শট নিয়ে আধাডজন লক্ষ্যে রাখলেও অবশ্য গোলরক্ষক আলি খাসেফের দৃঢ়তায় গোলমুখ খুলতে পারেনি জায়ান্টরা।

তবে খেলার গতির স্রোতের বিপরীতে উল্টো ফল এসে পড়ে আল-জাজিরাই প্রথম এগিয়ে গেলে। ম্যাচের ৪৩ মিনিটে আল-জাজিরাকে এগিয়ে দেন এক ব্রাজিলিয়ান। আড়াআড়ি শটে কেইলর নাভাসকে পরাস্ত করে রিয়ালের জাল খুঁজে নেন ফরোয়ার্ড রোমারিনহো। তাতে পিছিয়ে থেকেই পানিপানের বিরতিতে যেতে হয় লস ব্ল্যাঙ্কোসদের।

শুরুর দিকে চোট পাওয়া গোলরক্ষক আলি খাসেফকে বসিয়ে বিরতির পর ৫১ মিনিটে খালেদ আল সেনানিকে মাঠে পাঠান জাজিরা কোচ। তাতে গোলমুখও অবমুক্ত হয়ে পড়ে দলটির।

সুযোগে ম্যাচের ৫৩ মিনিটে রিয়ালকে সমতায় ফেরান রোনালদো। লুকা মডরিচের বাড়ানো বলে গোলটি করেন সদ্যই ব্যালন ডি’অর জয়ী বর্ষসেরা ফুটবলার।

এরপর মাঠের খেলা নিয়ন্ত্রণ করার পাশাপাশি গোলের খেলাও নিয়ন্ত্রণে রাখতে যাচ্ছিল রিয়াল। সেটি হতে দেয়নি পোস্ট দুর্ভাগ্য। ম্যাচের ৬৫ মিনিটে করিম বেনজেমার শট পোস্টে লাগে। চার মিনিট পর একইভাগ্যে আবারও হতাশ হন তিনি।

রিয়াল তখন সমতায়। একটা গোল চাই-ই-চাই। জিদান আক্রমণের ধার বাড়াতে ৮১ মিনিটে বেনজেমাকে তুলে গ্যারেথ বেলকে পাঠান। নেমে প্রথম মিনিটেই ম্যাজিক্যাল ফল এনে দেন ওয়েলস ফরোয়ার্ড। লুকাস ভাসকেজের বাড়ানো বলে জয়সূচক গোলটি আদায় করে নেন বেল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here