ক্রিকেটের নতুন ফরম্যাট টি-টেন লিগে চ্যাম্পিয়ন হলো সাকিবদের দল কেরালা কিংস। প্রথম আসরেই পাঞ্জাব লিজেন্ডসকে ৮ উইকেটে পরাজিত করেছে শিরোপা ঘরে তুলেছে দলটি। রোববার রাতেই টুর্নামেন্টের দুটি সেমিফাইনাল ও ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়।

প্রথম দল হিসেবে সাকিবদের দল ফাইনালে ওঠায় বাংলাদেশি ক্রীড়াপ্রেমীদের অপেক্ষা ছিল সাকিব-তামিম ফাইনাল দেখার। কিন্তু দ্বিতীয় সেমিফাইনালে তামিম ইকবালদের দল পাখতুনস হেরে যাওয়ায় সেই রোমাঞ্চ অধরাই থাকে।

পরে নজর ছিল সাকিবের দিকেই। টাইগার তারকা ব্যাট করার সুযোগ পাননি। বল হাতে ছিলেন দলের সবচেয়ে খরুচে। ২ ওভারে ৩১ রান দিয়ে উইকেটশূন্য। করেছেন তিনটি ওয়াইডও। এর আগে সেমিতেও বিবর্ণই ছিলেন সাকিব। ব্যাটে এসে কোন বল না খেলেই রানআউট হয়েছেন, বল হাতেও ছিল না সাফল্য। তবে শিরোপার উৎসবে মাততে সেটি অন্তরায় হয়নি।

শারজায় শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ১০ ওভারে ৩ উইকেটে ১২০ রান তোলে পাঞ্জাবি লিজেন্ডস। জবাবে ৮ উইকেট আর ১২ বল হাতে রেখেই শিরোপা নিশ্চিত করে কেরালা কিংস।

পাঞ্জাবিদের মূলত টেনেছেন লুক রঞ্চি। সেমিতে অপরাজিত ফিফটি করে দলকে ফাইনালে এনে ঝড় তুলেছেন আরেকবার। রানআউট হয়ে ফেরার আগে ৩৪ বলে ৭০ রান করেছেন সমান ৫টি করে চার-ছক্কায়।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলে চ্যাডউইক ওয়াল্টনকে (০) হারায় কেরালা। পরে ৪০ বলে ১১৩ রানের জুটি গড়ে ম্যাচ টেনে নেন পল স্টার্লিং ও ইয়ন মরগান।

অধিনায়ক মরগান ৫ চার ও ৬ ছক্কায় ২১ বলে ৬৩ রানে ফিরেছেন, তার স্ট্রাইকরেট কাটায়-কাটায় ৩০০! অন্যপ্রান্তে স্টার্লিং ৩ চার ও ৫ ছয়ে ২৩ বলে ৫২ রানে অপরাজিত থেকে ম্যাচ শেষ করেই ফেরেন। দল শিরোপায় নোঙর ফেলার সময় কাইরন পোলার্ড অপরাজিত ছিলেন ৪ বলে ২ রানে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here