শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে ৮ উইকেটে জিতে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ নিজেদের করেছে ভারত। শেখর ধাওয়ান অপরাজিত শতক হাঁকিয়ে দলকে সহজ জয় এনে দেন। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় ওয়ানডে খেলতে নামা শ্রেয়াশ ইয়ার। ‘ব্যাক টু ব্যাক’ অর্ধশতক করেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা এদিন আগে ব্যাট করে ২৭ ওভারের ভেতর দুই উইকেটে ১৬০ রান তুলে ফেলে। সেখান থেকে শেষ সাত ব্যাটসম্যান ৫৫ যোগ করতে গুটিয়ে যান!

২১৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১০৭ বল হাতে রেখে দুই উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় স্বাগতিক ভারত।

কুলদ্বীপ যাদব এবং যুবেন্দ্র চাহাল তিনটি করে উইকেট দখল করেন। দুটি উইকেট নেন হার্দিক পাণ্ডে।

ব্যাট করতে নেমে আগের ম্যাচের ডাবল সেঞ্চুরিয়ান রোহিত (৭) শর্মাকে হারিয়ে শুরু করে ভারত। এরপর দায়িত্বটা নিজের কাঁধে তুলে নেন ধাওয়ান। সঙ্গে ছিলেন আইপিএল থেকে আলোয় আসা তেইশ বছরের শ্রেয়াস। আগের ম্যাচে ৭০ বলে ৮৮ করেছিলেন। এদিন ৬৩টি বলে ৮টি চার আর একটি ছয়ে ৬৫ করে পেরেরার বলে লাকমালের হাতে ক্যাচ দেন। শ্রেয়াশ ফিরে গেলে ধাওয়ান শতক তুলে অপরাজিত থাকেন। ৮৪ বলে ম্যাজিক ফিগারে পা রাখেন তিনি।

ধাওয়ান এদিন ভারতের দ্বিতীয় দ্রুততম ব্যাটসম্যান হিসেবে চার হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন। তিনি এত সংখ্যক রান করলেন ৯৫ ইনিংসে। কোহলি করেছিলেন ৯৩ ইনিংসে।

শ্রীলঙ্কার উপুল থারাঙ্গা আর সামারাবিক্রম বাদে আর কেউ ব্যাট হাতে লড়াই করতে পারেননি। থারাঙ্গা ৮২ বলে ৯৫ করেন। এদিন তিনি বছরের তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে হাজার রান পূর্ণ করেন। ২০১৭ সালে ওয়ানডেতে এক হাজার রান আছে রোহিত এবং কোহলিরও।

সামারাবিক্রম ৫৭ বলে ৪২ করেন। তৃতীয় সর্বোচ্চ রান যৌথভাবে ম্যাথিউস এবং গুনারত্নের, ১৭!

সিরিজের প্রথম ম্যাচ ৭ উইকেটে জিতেছিল লঙ্কানরা। পরের ম্যাচে রোহিতের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরিতে ১৪১ রানের বড় জয় পায় স্বাগতিক ভারত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: আট উইকেটে জয়ী ভারত।

শ্রীলঙ্কা ইনিংস: ২১৫ (৪৪.৫ ওভার)

(দানুশকা গুনাথিলাকা ১৩, উপুল থারাঙ্গা ৯৫, সাদিরা সামারাবিকরামা ৪২, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ১৭, নিরোশান ডিকওয়েলা ৭, আসেলা গুনারত্নে ১৭, থিসারা পেরেরা ৬, সাচিথ পাথিরানা ৭, আকিলা ধনঞ্জয়া ১, সুরঙ্গা লাকমল ১, নুয়ান প্রদ্বীপ ০*; ভুবনেশ্বর কুমার ১/৩৫, জ্যাসপ্রীত বুমরাহ ১/৩৯, হার্দিক পান্ডিয়া ২/৪৯, কুলদ্বীপ ৩/৪২, যুজবেন্দ্র চাহাল ৩/৪৬)।

ভারত ইনিংস: ২১৯/২ (৩২.১ ওভার)

(রোহিত শর্মা ৭, শিখর ধাওয়ান ১০০*, শ্রেয়াস আয়ার ৬৫, দিনেশ কার্তিক ২৬*; সুরঙ্গা লাকমল ০/২০, আকিলা ধনঞ্জয়া ১/৫৩, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ০/৩০, সাচিথ পাথিরানা ০/৩৩, নুয়ান প্রদ্বীপ ০/১০, থিসারা পেরেরা ১/২৫, আসেলা গুনারত্নে ০/৩০, দানুশকা গুনাথিলাকা ০/১২)।

সিরিজের ফল: তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জয়ী ভারত।

প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: কুলদ্বীপ যাদব (ভারত)।

প্লেয়ার অব দ্য সিরিজ: শিখর ধাওয়ান (ভারত)।

 

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here