চলমান মৌসুমে লা লিগায় এখনো হারের মুখ দেখতে হয়নি লিওনেল মেসির বার্সেলোনাকে। কাতালানদের জয়রথ ছুটছেই। গেল রাতে লুইস সুয়ারেজ ও পাওলিনহোর গোলে দেপোর্তিভো লা করুনার বিপক্ষে বড় জয় পেল ভালভার্দের ছাত্ররা।

ঘরের মাঠে লা লিগার ম্যাচটি ৪-০ গোলে জিতেছে বার্সা। দুটি করে গোল করেন সুয়ারেজ ও পাওলিনহো। গোলের দেখা পাননি মেসি। তার তিনটি প্রচেষ্টা আটকে যায় গোলপোস্টে। স্পট কিকেও পাননি জালের দেখা। তবে অদ্যাবধি ১৪ গোল করা মেসি আছেন লিগের সেরা গোলদাতার আসনে।

শুরুটাই হয়েছে মেসির আক্ষেপ দিয়ে। ৪ মিনিটে ডিবক্সের মধ্যে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা খুঁজে পান তাকে। কিন্তু আর্জেন্টাইন তারকা বল গোলপোস্টের উপর দিয়ে উঠিয়ে মারেন। ৭ মিনিটে গোল উদযাপন করতে গিয়েও পারেননি সুয়ারেস। লাইন্সম্যান অফসাইডের কারণে তার গোল বাতিল করে দেন। মেসিকে ১৪ মিনিটে বাঁ পাশে ঝাপিয়ে পড়ে ঠেকান দেপোর্তিভো গোলরক্ষক রুবেন। পাঁচবারের ব্যালন ডি’অরজয়ী আবারও রুবেনের কাছে পরাস্ত হন ২৭ মিনিটে। অবশ্য এর দুই মিনিট পর মেসির পাস থেকে ১-০ করেন সুয়ারেস।

৩৭ মিনিটে আবারও স্বাগতিক দর্শকদের অবাক করে দিয়ে সুযোগ নষ্ট করেন মেসি। তার জোরালো শট চলে যায় গোলপোস্টের উপর দিয়ে। চার মিনিট পর আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের শট পোস্টে লেগে ফিরে এলে পরের শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন পাউলিনিয়ো। বিরতির ঠিক আগে গোললাইন পার হওয়া সুয়ারেসের ভলি রেফারির অগোচরে ফিরিয়ে দিয়ে গোল ব্যবধান ২-০ রাখেন রুবেন।

বিরতি থেকে ফেরার দ্বিতীয় মিনিটে সার্জি রবার্তোর পাসে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন সুয়ারেস। উরুগুয়ান স্ট্রাইকার দুই গোল পেয়ে গেলেও মেসি ঠিকানা খুঁজে পাননি। ৬৭ মিনিটে তার ফ্রি কিক পোস্টে লেগে ব্যর্থ হয়। পরের মিনিটে খুব কাছে গিয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি ৩০ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। এমনকি ৭০ মিনিটে পেনাল্টি থেকেও গোলবঞ্চিত হন মেসি। তার শট বাঁ দিকে লাফিয়ে ফিরিয়ে দেন রুবেন। বাকি সময়ে আরও কয়েকবার দেপোর্তিভোর ডিবক্সে ঢুকেছিলেন মেসি। কিন্তু তার কাছে গোল দেখতে পায়নি দর্শকরা।

অবশ্য ৮০ মিনিটে সুযোগসন্ধানী পাউলিনিয়ো তার দ্বিতীয় গোল করেন। জর্দি আলবার শট পোস্টে লেগে ফিরে গেলে গোলমুখের একেবারে সামনে থেকে ৪-০ করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা।

এই জয়ে ১৬ ম্যাচে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকলো বার্সেলোনা। তাদের চেয়ে ৬ পয়েন্ট পেছনে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ (৩৬)। ভ্যালেন্সিয়া ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে তিনে, আর এক ম্যাচ কম খেলা রিয়াল মাদ্রিদ ৩১ পয়েন্টে চার নম্বরে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here