জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে জেরুজালেম বা বায়তুল মুকাদ্দাস বিষয়ক প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে আমেরিকা। মিশরের পক্ষ থেকে উত্থাপিত প্রস্তাবটির খসড়ায় পরিষদের ১৫ সদস্য দেশের মধ্যে ১৪ দেশ পক্ষে ভোট দিলেও আমেরিকার ভেটোর কারণে তা অনুমোদিত হয়নি।

কার্যত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাম্প্রতিক বিতর্কিত ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করে প্রস্তাবটি উত্থাপন করা হয়েছিল; যদিও এটিতে ওই ঘোষণার কথা সরাসরি উল্লেখ করা হয়নি।

প্রস্তাবটিতে বলা হয়েছিল, জেরুজালেমের পরিচিতি, অবস্থান বা জনসংখ্যার কাঠামোয় যেকোনো ধরনের পরিবর্তন আনার প্রচেষ্টা অবৈধ এবং নিরাপত্তা পরিষদের আগের প্রস্তাবগুলোর পরিপ্রেক্ষিতে তা বাতিল বলে গণ্য।

প্রস্তাবটির খসড়ায় আরো বলা হয়েছিল, নিরাপত্তা পরিষদের ৪৭৮ নম্বর প্রস্তাব অনুযায়ী বিশ্বের কোনো দেশ যেন জেরুজালেম শহরে তার দূতাবাস, কনস্যুলেট বা অন্য কোনো কূটনৈতিক দপ্তর না খোলে। এ ছাড়া, জেরুজালেমকেন্দ্রীক নিরাপত্তা পরিষদের আগের কোনো প্রস্তাব লঙ্ঘিত হয় এমন কাজ যেন কেউ না করে।

মিশর শনিবার এই প্রস্তাবের খসড়া জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্য দেশের কাছে বিতরণ করেছিল এবং সোমবার রাতে এটির ওপর ভোটাভুটি হয়। আমেরিকা ছাড়া বাকি ১৪ সদস্যদেশ প্রস্তাবটির পক্ষে ভোট দেয়ার পাশাপাশি এর প্রতি সম্মান প্রদর্শনের জন্য ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল।

কিন্তু সে আহ্বানে সাড়া না দিয়ে আমেরিকা কার্যত নিজেই একঘরে হয়ে পড়ল।

সারাবিশ্বের বিরোধিতা উপেক্ষা করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ৬ ডিসেম্বর জেরুজালেমকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন। একইসঙ্গে তেল আবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করারও নির্দেশ দেন তিনি।

ইহুদিবাদী ইসরাইল ১৯৬৭ সাল থেকে জেরুজালেম দখল করে আছে। মুসলমানদের প্রথম ক্বেবলা আল-আকসা মসজিদ এই শহরে অবস্থিত এবং এটি ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের অবিচ্ছেদ্য অংশ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here