অবশেষে দুই মাস ধরে নিখোঁজ থাকার পর সাংবাদিক উৎপল দাসের সন্ধান পাওয়া গেছে। উৎপল দাসকে নারায়ণগঞ্জের ভুলতা এলাকায় পাওয়া গেছে। তার বাবা চিত্তরঞ্জন দাস ও বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের যুগ্ম মহাসচিব পুলক ঘটকের কথা হয়েছে বলে তারা নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া উৎপলের বন্ধু সমকালের সাংবাদিক রাজিব আহমেদ ও উৎপলের সহকর্মী রাজু হামিদও বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার রাতে উৎপলের সঙ্গে মোবাইলে তার বাবা চিত্তরঞ্জন দাস, সাংবাদিক নেতা, সহকর্মী ও বন্ধুদের কথা হয়েছে বলে তারা জানান। এছাড়া নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান রাত একটায় সাংবাদিক উৎপল দাসের সন্ধান পাওয়া গেছে বলে নিশ্চিত করেছেন।

তবে এতদিন কোথায় ছিলেন, কীভাবে নিখোঁজ হলেন, কারা তাকে গুম করেছিল সেসব প্রশ্নের উত্তর মেলেনি এখনো। উৎপলের বন্ধু সমকালের সাংবাদিক রাজীব আহমেদ বলেন, উৎপলের ব্যক্তিগত নাম্বারে তার সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তাকে কেউ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভুলতা এলাকায় ফেলে রেখে গেছে। সে এখন নরসিংদির রায়পুরায় নিজের বাড়িতে যাচ্ছে।

উৎপলের বাবা চিত্তরঞ্জন দাস বলেন, ‘উৎপলের সঙ্গে আমি এবং তার মায়ের কথা হয়েছে। সে আমাদের জানিয়েছে নারায়ণগঞ্জের ভুলতা এলাকায় আছে। বাড়িতে আসছে। এর বেশি কিছুই বলেনি, শুধু বলেছে বিস্তারিত বাড়ি আসলে জানাবে।’

এছাড়াও নারায়নয়ণঞ্জেরে রুপগঞ্জ থেকে উৎপল বাড়িতে ফোন করেছে বলে নিশ্চিত করেছেন তার বোন বিনিতা রানী দাস।

তাকে কেউ ফেলে রেখে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হতে , কোথায় ছিলেন জানতে চাইলে উৎপল বলেন, ‘আমি ঘুরতে গিয়েছিলাম, এখন ফেরত আসছি। কোথায় গিয়েছিলাম, কেন গিয়েছিলাম এখন আমি এসব প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবো না।’

রাত ১২টায় সঙ্গে উৎপলের কথা হয়। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমি সুস্থ আছি। এখন নারায়ণগঞ্জ থেকে নরসিংদী মা-বাবার কাছে যাচ্ছি। বিস্তারিত পরে জানাবো।’

উৎপল দাসের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ঢাকার সাংবাদিক রাজীব আহমদ জানান রাতে হঠাৎ করেই ভাইবারে সচল দেখা যায় উৎপলকে। এরপরই একজন সাংবাদিক তাকে কল দিলে উৎপল দ্বিতীয় দফায় সেটি রিসিভ করেন।

তবে পরবর্তীতে সাংবাদিক রাজীব আহমেদ আবারও নিজের এক ফেসবুক পোস্টে জানান, উৎপল এখন নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জ থানার ভুলতা ফাঁড়ির পুলিশের হেফাজতে আছে। সে সুস্থ ও ভাল আছে।

উৎপলের সঙ্গে তার সহকর্মী রাজু হামিদসহ আরও কয়েকজনের কথা হয়েছে বলে তারা নিশ্চিত করেছেন। রাজু হামিদ বলেন, ‘আমার সঙ্গেও কথা হয়েছে। উৎপল বললো ভালো আছি। খুব স্বাভাবিক মনে হলো। আমাকে বললো বাড়ি যাচ্ছি, ফিরে এসে বিস্তারিত কথা হবে।’

 

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের যুগ্ম মহাসচিব পুলক ঘটক বলেন, উৎপলের সঙ্গে তারও কথা হয়েছে। উৎপল তাকে বলেছেন, তিনি নিরাপদ ও ভালো আছেন। বুধবার সকালে বাড়ি ফিরবেন।

মতিঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক বলেন, ‘বিষয়টি এখনও আমরা জানি না। তবে আমরা খোঁজ নিচ্ছি।’

অন্যদিকে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান রাত একটায় বলেন, ভুলতার আধুরিয়া এলাকার শাহজালাল ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে উৎপলকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে ভুলতা পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে। আত্মীয়স্বজনকে খবর দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য গত ১০ অক্টোবর রাজধানী থেকে নিখোঁজ হন পূর্বপশ্চিম ডট নিউজের সিনিয়র রিপোর্টার উৎপল। গত ২২ ও ২৩ অক্টোবর মতিঝিল থানায় পৃথক দুটি সাধারণ ডায়েরি করেন উৎপলের বাবা চিত্তরঞ্জন দাস এবং পূর্বপশ্চিমের সম্পাদক খুজিস্তা নূরে নাহরীন।

পুলিশের তথ্যনুযায়ী, তার সর্বশেষ অবস্থান ছিল ধানমণ্ডি ৩২ নম্বর এলাকায়। ১০ অক্টোবর বেলা একটা ৪৭ মিনিট থেকে তার ফোন বন্ধ থাকে। উৎপল নিখোঁজ হওয়ার পর থেকেই সাংবাদিকরা উৎপলের সন্ধানের দাবিতে রাজপথে নিয়মিত কর্মসূচি পালন করেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here