জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ বলেছেন, রংপুর সিটি নির্বাচনে কোনো অনিয়ম হচ্ছে না, এ নির্বাচন ইসির জন্য একটি পরীক্ষা।

রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচনে ভোট দিয়ে এসে তিনি উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের এ কথা বলেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে নগরীর শিশুমঙ্গল প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে উপস্থি হয়ে ভোট দেন। এসময় একই কেন্দ্রে ভোট দেন দলের কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

ভোটকেন্দ্র থেকে বের হয়ে এরশাদ বলেন, এখানে কোনো অনিয়ম হচ্ছে না। আশা করছি লাখো ভোটের ব্যাবধানে আমরা জিতব। এটা নির্বাচন কমিশনের জন্য একটা পরীক্ষা। তাই নিজেদেরকে প্রমাণ করার জন্যই এই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে।

এদিকে এর আগে রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দেওয়ানটুলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে নিজের ভোট দিয়েছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী কাওছার জামান বাবলা। এ সময় তিনি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকার ঘোষণা দেন।

অপরদিকে আলমনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা। এ সময় নিজের জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

মেয়র পদপ্রার্থী বিএনপির কাওছার জামান বাবলা নিজের ভোট দিয়ে বলেছেন, তার দল শেষ পর্যন্ত ভোটের লড়াইয়ে থাকবে।

সকাল ৯টার কিছু আগে নগরীর দেওয়ানটুলি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিএনপির প্রার্থী ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। পরে তিনি সেখানে অবস্থানরত গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন।

কাওছার জামান বাবলা বলেন, মাত্র ভোট শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত ভোটের পরিবেশ ভাল। কিন্তু সারা দিন পরে রয়েছে। তখন কী হয়, সেটা দেখতে হবে।

বিএনপির এই প্রার্থী ভোট কারচুপি নিয়ে নিজের শঙ্কার কথাও জানান। তিনি অভিযোগ করেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রী বিশেষ দূত এইচ এম এরশাদ নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ গত পাঁচ দিন ধরে রংপুরে নিজের বাসভবনে অবস্থান করছেন এবং দলীয় প্রার্থীর পক্ষে প্রচার চালাচ্ছেন।

তবে যত কিছুই হোক, শেষ পর্যন্ত ভোটের মাঠে দৃঢ়ভাবে থাকার কথা বলেছেন বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী।

আজ সকাল ৮টা থেকে ১৯৩টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ ভোটগ্রহণ চলবে।

এ সিটি কর্পোরেশনে বর্তমানে ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৯৬ হাজার ৩৫৬ ও মহিলা ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৩৮ জন। সাতজন মেয়র প্রার্থীসহ সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২১১ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৬৫টি জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here