টেস্ট, ওয়ানডে সিরিজ জেতার পর এক ম্যাচ হাতে রেখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টুয়েন্টি সিরিজও জিতে নিল ভারত। দ্বিতীয় ম্যাচে রোহিত শর্মার রেকর্ড গড়া ইনিংসের সুবাদে লঙ্কানদের ৮৮ রানে হারায় টিম ইন্ডিয়া। শুক্রবার রোহিত ৩৫ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ডেভিড মিলারের দ্রুততম টি-টুয়েন্টি শতকের রেকর্ড স্পর্শ করেন।

দুটি টেস্ট ড্র হওয়ায় তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ভারত জিতেছিল ১-০ ব্যবধানে। এরপর ওয়ানডেতে প্রথম ম্যাচ হারার পর দাপটের সঙ্গে পরের দুই ম্যাচ জিতে নেয় ভারত। রোহিত শর্মা দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়ানডে ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরি করেন।

টি-টুয়েন্টিতে প্রথম ম্যাচের জয় ছিল ৯৩ রানের। শুক্রবার দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কা টস জিতে ভারতকে আগে ব্যাট করতে পাঠায়। লোকেশ রাহুল আর রোহিত শর্মার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে দারুণ শুরু পায় দলটি। দুজনে ১৩.৪ ওভারের ভেতর ১৭৬ রান তুলে ফেলেন। ১৪তম ওভারে রোহিত যখন ফেরেন তখন তার নামের পাশে ১১৮ রান। ৪৩ বলে ১২টি চার আর ১০টি ছয়ে এই রান করেন তিনি। ভারত শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেটে ২৬০ রান করে। টি-টুয়েন্টির ইতিহাসে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। সবচেয়ে বড় দলীয় স্কোর অস্ট্রেলিয়ার। সেটিও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে, ২৬৩।

রোহিত এদিন অর্ধশতকে পৌঁছান ২৩ বলে। লোকেশকে নিয়ে ৮.৪ ওভারের ভেতর দলীয় শতরান পূরণ করেন।

মিলার গত অক্টোবরে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩৫ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন। টি-টুয়েন্টিতে দ্বিতীয় দ্রুততম সেঞ্চুরি ৪৫ বলে। সেটির মালিক সাউথ আফ্রিকার আরেক ব্যাটসম্যান রিচার্ড লেভি। ২০১২ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এই কীর্তি গড়েছিলেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা জবাব দিতে নেমে ৩৫ রানের মাথায় ডিকেভেল্লাকে (২৫) হারালেও পরের জুটি ১৪৫ পর্যন্ত দলকে টেনে নেয়। ওই সময় ১৪তম ওভারে থারাঙ্গা ৪৭ রানে ফিরে গেলে কুশল পেরেরা লড়াইটা ধরে রাখেন। ৩৭ বলে চারটি চার আর সাতটি ছয়ে তিনি ৭৭ করে ফিরে গেলে পথ হারায় শ্রীলঙ্কা। এরপর আর কেউ ১০’র ঘরই স্পর্শ করতে পারেননি! ১৭.২ ওভারে ১৭২ রানে গুটিয়ে যায় সফরকারী দলটি।

স্বাগতিক দলের কুলদ্বীপ যাদব ৫২ রান দিয়ে তিন উইকেট দখল করেন। যুবেন্দ্র চাহালও সমান রান খরচ করেন। তিনি উইকেট নেন চারটি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ৮৮ রানে জয়ী ভারত।

ভারত ইনিংস: ২৬০/৫ (২০ ওভার)

(রোহিত শর্মা ১১৮, লোকেশ রাহুল ৮৯, মহেন্দ্র সিং ধোনি ২৮, হার্দিক পান্ডিয়া ১০, শ্রেয়াস আয়ার ০, মনিশ পান্ডে ১*, দিনেশ কার্তিক ৫*; অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ০/১৬, দুশমান্থ চামিরা ১/৪৫, নুয়ান প্রদ্বীপ ২/৬১, আকিলা ধনঞ্জয়া ০/৪৯, থিসারা পেরেরা ২/৪৯, চতুরঙ্গ ডি সিলভা ০/১৬, আসেলা গুনারত্নে ০/২১)।

শ্রীলঙ্কা ইনিংস: ১৭২ (১৭.২ ওভার)

(নিরোশান ডিকওয়েলা ২৫, উপুল থারাঙ্গা ৪৭, কুসল পেরেরা ৭৭, থিসারা পেরেরা ০, আসেলা গুনারত্নে ০, সাদিরা সামারাবিকরামা ৫, চতুরঙ্গ ডি সিলভা ১, আকিলা ধনঞ্জয়া ৫, দুশমান্থ চামিরা ৩, নুয়ান প্রদ্বীপ ০, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ (অ্যাবসেন্ট হার্ট); জয়দেব উনাদকাত ১/২২, জ্যাসপ্রীত বুমরাহ ০/২১, কুলদ্বীপ যাদব ৩/৫২, হার্দিক পান্ডিয়া ১/২৩, যুজবেন্দ্র চাহাল ৪/৫২)।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here