বরফে সংরক্ষিত সবচেয়ে পুরনো ভ্রূণ থেকে শিশুর জন্ম দিয়েছেন এক মার্কিন নারী। দীর্ঘ ২৫ বছর ফ্রিজে রাখা ভ্রূণ থেকে গতমাসে সফলভাবে জন্ম নেওয়া শিশুটিকে পরম আদরে কোলে তুলে নেন আমেরিকার টেনেসার এক দম্পতি ।

নভেম্বরের ২৫ তারিখে এমা রেন গিবসনের জন্ম হয়। বিশেষজ্ঞ ড. জেফরি কিনান প্রথম থেকেই তার দেখভাল করছিলেন।

এটা ছিল বিশ্বের দীর্ঘতম সময় হিমায়িত করা মানবভ্রূণ। ভ্রূণটি হিমায়িত করা হয় ১৯৯২ সালের ১৪ অক্টোবর। সেই ভ্রূণ থেকে নভেম্বরের ২৫ তারিখে এমা রেন গিবসনের জন্ম হয়।

বরফে সংরক্ষিত ভ্রূণটির বয়সই ছিল ২৪ বছর। এদিকে, টিনার বয়স ২৫। অর্থাৎ, যে মা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন, সেই ভ্রূণের বয়স মায়ের চেয়ে ১ বছর কম।

ইস্ট টেনেসিরর বাসিন্দা গিবসন সিএনএনকে বলেন, তোমরা কি বুঝতে পারছ আমি ২৫ বছর বয়সী। এ ভ্রূণ এবং আমি সর্বোত্তম বন্ধু হতে পারি। এর আগে ২০ বছর হিমায়িত করা ভ্রূণ দিয়ে সফলভাবে সন্তান জন্মদানের কথা জানা যায়।

বাবা বেঞ্জামিন খুবই উত্তেজিত। তিনি বলেন, “যদিও আমার ঔরশে জন্ম হয়নি তবুও এটাকে আমার শিশু বলেই মনে হচ্ছে।”

সাত বছর আগে গিবসন বিয়ে করেন। তখন তার স্বামীর ক্রিস্টিক ফিব্রোসিস রোগ ছিল। এতে পুরুষের উর্বরতা নষ্ট হয়। তাই তাদের পক্ষে সন্তান জন্মদান সম্ভব ছিল না। তখন তারা একটি সন্তানকে দত্তক নেওয়ার চিন্তা করেন। বেশ কয়েকটি পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর দেখা যায়, গিবসনের জরায়ুতে ভ্রূণ প্রতিস্থাপন করা সম্ভব। কিন্তু ভ্রূণ গ্রহণের মাধ্যমে সন্তান জন্মদানের বিষয়টি মোটেও মন্দ লাগেনি তাদের।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here