বিএন‌পির সিনিয়র যুগ্ম মহাস‌চিব রুহুল কবির রিজভী ব‌লে‌ছেন, ‘শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্যে প্রমাণিত হলো, বর্তমান সরকার আত্মস্বীকৃত চোর ও দুর্নীতিবাজ। দেশে যে জঙ্গলের রাজত্ব চলছে, বক্তব্যে সেটিরই বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে।’

সোমবার দুপু‌রে রাজধানীর নয়াপল্ট‌নে বিএন‌পির কেন্দ্রীয় কার্যাল‌য়ে নিয়মিত সংবাদ স‌ম্মেল‌নে রিজভী ‌এ মন্তব্য ক‌রেন। রিজভী বলেন, ‘যে উদ্দেশ্য নিয়ে ১৪ ডিসেম্বর দেশের বরেণ্য বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছিল হানাদার বাহিনী, সেই একই উদ্দেশ্য নিয়ে জাতিকে মেধাহীন করতে শিক্ষামন্ত্রী প্রশ্নপত্র ফাঁসসহ দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংসের জন্য অবিরাম গতিতে কাজ করে যাচ্ছেন।’

দেশের শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে রিজভী অভিযোগ করে বলেন, ‘সুকৌশলে শিক্ষামন্ত্রী নিজেদের লোকদের বিভিন্ন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র কেনাবেচার সুযোগ করে দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ সরকার স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা চাকরির পরীক্ষাগুলোতে প্রশ্নফাঁস করে টাকা ইনকামের অভিনব কৌশল উদ্ভাবন করেছেন। প্রশ্নফাঁস কেলেঙ্কারিতে ছাত্রলীগ জড়িত। শিক্ষামন্ত্রীর কথায় মনে হচ্ছে, তিনিই এসব কেলেঙ্কারির উৎসাহদাতা।’

খালি অফিসাররা চোর না মন্ত্রীরাও চোর, আমিও চোর: শিক্ষামন্ত্রী

গতকাল রাজধানীতে শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশ করে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘সব জায়গায় যে বলেছি অপচয়-দুর্নীতি আমরা কঠোর অবস্থান নেব এবং দুর্নীতির ক্ষেত্রে আমাদের জিরো টলারেন্স। এটা আমাদের বলতে হবে… কিন্তু আমি ইডির (ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট) সভায় বলছি, আপনারা দয়া করে ভালো কাজ করবেন। আপনাদের প্রতি আমার অনুরোধ, আপনারা ঘুষ খাবেন, তবে সহনশীল হইয়্যা খাবেন। অসহনীয় হয়ে বলা যায় আপনারা ঘুষ খাইয়েন না, এটা অবাস্তবিক কথা হবে।’

নুরুল ইসলাম নাহিদ আরো বলেন, ‘নানা জায়গায় এ রকম হইছে, সব জায়গাতেই এ রকম হইছে। খালি যে অফিসার চোর, তা না, মন্ত্রীরাও চোর, আমিও চোর। … এই জগতে এ রকমই চলে আসতেছে। সবাইকে আমাদের পরিবর্তন করতে হবে।’

সরকারই চেয়েছিল চালের দাম বাড়ুক: অর্থমন্ত্রী

এর আগে গতকাল সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, কৃষকদের সুবিধার্থে সরকারই চেয়েছিল চালের দাম বাড়ুক, কিন্তু দাম ৫০ টাকার ওপরে চলে যাওয়ায় তা অসহনীয় হয়ে পড়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, চালের দামের কারণে অনেক অসুবিধা হয়েছে, এতে কোনো সন্দেহ নেই। আমরা চেয়েছিলাম চালের দাম কিছুটা বাড়ুক, তবে দামটা অনেক বেড়ে গেছে। আগে অনেক কম ছিল, সেটা ভালোই ছিল, কিন্তু ৫০ টাকার ওপরে ওঠে যাওয়াতে কিছু লোকের খুব অসুবিধা হয়েছে।

 অর্থমন্ত্রী অনেক সময় সত্য কথা প্রকাশ করে দেন: রিজভী

অর্থমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে রিজভী বলেন, ‘সরকারই চেয়েছে চালের দাম কিছুটা বাড়ুক। কিন্তু প্রতি কেজি চালের দাম ৫০ টাকার বেশি হওয়াটা মানুষের জন্য বড় ধরনের সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটা অসহনীয় হয়ে গেছে। চালের দামে স্থিতিশীলতার বিষয়ে কোনো ঠিক ঠিকানা নেই।’ বিনা ভোটের সরকারের অর্থমন্ত্রী অনেক সময় সত্য কথা প্রকাশ করে দেন বলেও রিজভী মন্তব্য করেন।

‘দেশে বিদ্যমান নৈরাজ্যকর অমানিশার মধ্যে এ বক্তব্য দেশের জন্য আরো ভয়াবহ উদ্বেগ, ভয় ও বিপদের কারণ হতে পারে’ বলেও মনে করেন বিএনপির এই সিনিয়র নেতা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি,  সেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু  প্রমুখ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here