এবি ডি’ভিলিয়র্স শেষবার টেস্ট খেলতে নেমেছিলেন ২০১৬ জানুয়ারিতে৷ সেঞ্চুরিয়নে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার আধিনায়ক ছিলেন তিনি৷ মাঝে স্টপ গ্যাপ অধিনায়ক থেকে প্রোটিয়া দলের স্থায়ী নেতৃত্ব হাতে পেয়েছেন ফ্যাফ ডু’প্লেসিস৷ প্রায় দু’বছর পর টেস্ট ক্রিকেটে ফিরছেন এবিডি৷ কাকতলীয় ভাবে নেতা হিসাবেই কামব্যাক করছেন তিনি৷

জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে চার দিনের বক্সিং-ডে টেস্টে নিয়মিত অধিনায়ক ডু’প্লেসিসের খেলা অনিশ্চিত ছিল৷ প্রি-ম্যাচ সাংবাদিক সম্মেলনে এসেও নিজের খেলার বিষয়ে নিশ্চয়তা দিতে পারেননি ফ্যাফ৷ এমনিতে অক্টোবরে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে একদিনের সিরিজ চলাকালীন কাঁধে চোট পাওয়া ডু’প্লেসিসকে মাঠে নামতে হত ফিটনেস টেস্টে পাশ করে৷ তাপ উপর গত সপ্তাহের ভাইরাল ইনফেকশনের জন্য অশক্ত শরীরে খেলতে নামা নিয়ে সংশয় দেয়৷

ডু’প্লেসিস নিজে জানিয়েছিলেন যে, আগের সপ্তাহে তিনি বক্সিং-ডে টেস্ট খেলা নিয়ে ৮০ শতাংশ নিশ্চিত ছিলেন৷ তবে ম্যাচের আগের দিন সেই সম্ভাবনা কমে দাঁড়ায় ৬০ শতাংশে৷ শেষমেশ তাঁর আশঙ্কাই সত্যি প্রমাণিত হয়৷ জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে টেস্ট শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে প্রোটিয়া বোর্ডের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, খেলছেন না ডু’প্লেসিস৷ তাঁর জায়গায় দক্ষিণ আফ্রিকাকে নেতৃত্ব দেবেন ডি’ভিলিয়র্স৷

আপাতত এক ম্যাচের জন্যই দক্ষিণ আফ্রিকার নেতৃত্বে ফিরছেন ডি’ভিলিয়র্স৷ টিম ম্যানেজমেন্টের তরফে আশা প্রকাশ করা হয়েছে, ৫ জানুয়ারি থেকে ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের আগে সুস্থ হয়ে উঠবেন ডু’প্লেসিস৷ দলে ফিরলে নেতৃত্বের দায়ভার বর্তাবে তাঁর উপরেই৷

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here